সব কিছু
facebook lakshmipur24.com
লক্ষ্মীপুর বৃহস্পতিবার , ২৪শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৩ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি
লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীর তীররক্ষা বাঁধ নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদন হওয়ায় ঢাকায় বর্ণাঢ্য মিছিল

লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীর তীররক্ষা বাঁধ নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদন হওয়ায় ঢাকায় বর্ণাঢ্য মিছিল

লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীর তীররক্ষা বাঁধ নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদন হওয়ায় ঢাকায় বর্ণাঢ্য মিছিল

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল (অব) জাহিদ ফারুক এবং লক্ষ্মীপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মেজর (অব) আবদুল মান্নানকে অভিনন্দন জানিয়ে ঢাকায় বর্ণাঢ্য মিছিল ও শোভাযাত্রা করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৮জুন) সকাল ১১টায় ঢাকার প্রেসক্লাব ও পল্টন এলাকায় ঘোড়ার গাড়ি ও ব্র্যান্ড বাজিয়ে ব্যতিক্রম এ মিছিলের আয়োজন করে”কমলনগর-রামগতি বাঁচাও মঞ্চ’ নামের একটি অরাজনৈতিক সামাজিক সংগঠন।

মিছিল শেষে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে একটি পথসভার আয়োজন করা হয়। পথসভায় বক্তব্য রাখেন, কমলনগর-রামগতি বাঁচাও মঞ্চ’ এর আহবায়ক, সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী এডভোকেট আবদুস সাত্তার পালোয়ান, আওয়ামীলী‌গের যুব ও ক্রীড় বিষয়ক কে‌ন্দ্রেীয় উপক‌মি‌টি সদস্য আবদুজ জা‌হের সাজু, ঢাকাস্থ কমলনগর কল্যাণ স‌মি‌তির সভাপ‌তি এমএইচ খান মিরন, ঢাকাস্থ কমলনগরের বাসিন্দা শামীম হাসনাইন, আফজল হোসাইন (অনিক), শাহীনুল ইসলাম (সুমন), কাউছার র‌শিদ , রিদওয়ান উল্লাহ, মো: রা‌কিব হোসাইন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, স্বপ্নের নদী বাঁধ প্রকল্প পাস করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেন্ত্রী শেখ হাসিনা, মাননীয় পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক এবং মাননীয় সংসদ সদস্য (লক্ষ্মীপুর-৪) মেজর (অবঃ) আবদুল মান্নান মহোদয়ের নিকট কৃতজ্ঞ লক্ষ্মীপুরের দু উপজেলার মানুষ।
সে সাথে তারা দাবী করে জানান, যদি ঠিকাদার দিয়ে বাঁধ নির্মান করা হয়; তবে ১ বছরের মধ্যে বাঁধ ভেঙ্গে লক্ষ লক্ষ মানুষের স্বপ্ন দুঃস্বপ্নে পরিনত হতে পারে। এতে লাভবান হবে স্থানীয় কিছু দুর্নীতিবাজ মানুষ। তাই বক্তারা সেনাবাহিনীর মাধ্যমে বাঁধ নির্মানের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট জোরালো দাবী জানান।

স্থানীয় ভাবে জানা যায়, লক্ষ্মীপুরের রামগতি ও কমলনগর উপজেলার মেঘনা নদীর ভয়াবহ ভাঙ্গন কবলিত এলাকায় ৩ হাজার ৮৯.৯৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ৩১ কিলোমিটার নদী বাঁধ নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদন দেয়ায় কৃতজ্ঞতা জানিয়ে এ বর্ণাঢ্য মিছিল করা হয়। মিছিলে লক্ষ্মীপুরের রামগতি এবং কমলনগর উপজেলার ঢাকাস্থ নাগরিকরা অংশ নেয়। এর আগে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি-একনেক গত ১ জুন তারিখে উক্ত প্রকল্প অনুমোদন দেয়।

অন্যদিকে গত ৩০ বছরের অধিক সময় ধরে মেঘনার ভয়াবহ ভাঙ্গনে রামগতি ও কমলনগর উপজেলা বাংলাদেশের মানচিত্র থেকে বিলীনের পথে। নদী বাঁধের দাবীতে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন সংগঠন আন্দোলন করে আসছিল। তবে বিগত ২০১৫ সালের পর থেকে কমলনগর-রামগতি বাঁচাও মঞ্চ’ নামের  সংগঠনটি প্রায় নিয়মিত ভাবে স্থানীয় এলাকা, জেলা শহর ও ঢাকায় গোল বৈঠক টেবিল, মানববন্ধন, মিছিল, বিক্ষোভ, সড়ক অবরোধ সহ নানা গঠনমূলক কর্মসূচী পালন করে আসছে। সেই সকল কর্মসূচী স্থানীয় ও জাতীয় বিভিন্ন মিডিয়ায় গুরুত্ব দিয়ে প্রচার হয়ে আসছিল।

কমলনগর-রামগতি বাঁচাও মঞ্চ: লক্ষ্মীপুরের কমলনগর ও রামগতি উপজেলায় মেঘনা নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্থ স্থানীয় তরুণদের সংগঠন কমলনগর-রামগতি বাঁচাও মঞ্চ । অরাজনৈতিক সংগঠন হিসেবে ২০১৫ সালের পরে এ সংগঠনটির সূচনা হয়। শুরু থেকেই নদী ভাঙ্গন ইস্যু ও নদী ভাঙ্গন নিয়ে যে কোন অসঙ্গতি তুলে ধরছে এ সংগঠনের তরুণ ও যুবকরা। সংগঠনটির উদ্যোগে নদী ভাঙ্গন ইস্যুতে উপজেলা, জেলা এবং ঢাকা শহরে মানববন্ধন, মিছিল ও বহু  শোভাযাত্রা করা হয়েছে। স্থানীয় এলাকাবাসী এ সংগঠনকে বিভিন্ন সময় নদী ভাঙ্গনের পাহাদার সংগঠন নামেও অভিহিত করেছে বলে জানিয়েছে সংগঠনটির সাথে জড়িতরা।

নদী ভাঙ্গন আরও সংবাদ

একনেক মিটিং-এ মেঘনা নদীর তীররক্ষা বাঁধ প্রকল্প পাশ

একনেক মিটিং-এ মেঘনা নদীর তীররক্ষা বাঁধ প্রকল্প পাশের দাবীতে লক্ষ্মীপুরে মানববন্ধন

লক্ষ্মীপুরের সাড়ে পাঁচ লাখ অধিবাসীকে পরিবেশ উদ্বাস্তু থেকে রক্ষা করতে পারে একনেকের একটি সভা

লক্ষ্মীপুরে জলোচ্ছ্বাস ও জোয়ার মেঘনারতীরের সব ইউনিয়ন প্লাবিত

লক্ষ্মীপুরের নদী ভাঙ্গন থেকে রক্ষা চেয়ে বাইতুল মোকাররমসহ শতাধিক মসজিদে দোয়া

সড়কের বেহাল অবস্থা, চরম দুদর্শায় রামগতিবাসী

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত : লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর © ২০১২-২০২১
উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকূল ইসলাম মন্টু, সম্পাদক ও প্রকাশক: সানা উল্লাহ সানু।
স্বপ্না মঞ্জিল (নিচ তলা), গণি হেড মাস্টার রোড, লক্ষ্মীপুর-৩৭০০।
ফোন: ০১৭৯৪-৮২২২২২, WhatsApp , ইমেইল: news@lakshmipur24.com