সব কিছু
লক্ষ্মীপুর মঙ্গলবার , ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ , ৪ঠা রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

একেএম শাহজাহান কামালের বর্নাঢ্য রাজনৈতিক জীবন

একেএম শাহজাহান কামালের বর্নাঢ্য রাজনৈতিক জীবন

সানা উল্লাহ সানু: লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) একেএম শাহজাহান কামাল মন্ত্রী হচ্ছেন। সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে তাকে মন্ত্রিপরিষদের সচিব ফোন করে মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় বঙ্গভবনে উপস্থিত থাকার জন্য বলেছেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে উন্নয়নে পিছিয়ে পড়া জনপদ লক্ষ্মীপুরে স্থানীয়দের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। তিনি লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান কমিটির সদস্য। প্রবীণ এ রাজনীতিবীদ দু’বারের এমপি।

বর্নাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী এমপি একেএম শাহজাহান কামাল।

বঙ্গবন্ধুর ৬ দফা আন্দোলন, ১৯৬৯ এর গণঅভুত্থান এবং ১৯৭১ এর স্বাধীনতা আন্দোলনে সক্রীয় অংশ গ্রহণ তথা নেতৃত্ব দানের মধ্যদিয়ে এদেশের স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধের ভয়াল দিন গুলোতে নিজের জীবনের মায়া ত্যাগ করে যুদ্ধ করেন তিনি। স্বাধীনতার পর লক্ষ্মীপুর এলাকার পুনর্গঠনে আত্মনিয়োগ করেন।

১৯৭৩ সালের ৭ মার্চ বাংলাদেশের প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি নোয়াখালী-১১ ( লক্ষ্মীপুর) আসন থেকে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। অন্যদিকে ২০১৩ সালের ৫ জানুয়ারি একই আসন থেকে বিনা প্রতিদ্বন্ধীতায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দীর্ঘ দিনের লক্ষ্মীপুর জেলা সভাপতি একেএম শাহজাহান কামালের জন্ম ১৯৫০ সালের ১ জানুয়ারি লক্ষ্মীপুরের সদর উপজেলার মজুপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা আলহাজ্ব ফরিদ আহমেদ এবং মাতা মাসুমা খাতুন। ছাত্রজীবন থেকে জনাব শাহজাহান কামাল একজন ছাত্রনেতা হিসেবে সুপরিচিত ছিলেন। তিনি ১৯৬৩ সালে লক্ষ্মীপুর মডেল হাইস্কুল থেকে এসএসসি, চৌমুহনী মদন মোহন কলেজ থেকে ১৯৬৫ সালে এইচএসসি পাস করেন এবং একই কলেজ থেকে বিএ ডিগ্রি অর্জন করেন। তারপর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এম এ শ্রেনীতে এবং আইন বিভাগেও ভর্তি হন।

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকালে ১৯৬৬ সালের ৬ দফা ও ১৯৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। এসময় আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মুক্তির দাবিতে রাজপথের আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা রাখেন।

জনাব একেএম শাহজাহান কামাল একজন সফল সংগঠক। তিনি দীর্ঘদিন একনাগাড়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ লক্ষ্মীপুর জেলা সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হিসেবে যোগ্যতার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি ‘মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড হিসেবে লক্ষ্মীপুর’ সহ অনেকগুলো সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। তাঁর ছোট ভাই ড. এএসএম মাকসুদ কামাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি।

তিনি একজন বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারত থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নোয়াখালী ও লক্ষ্মীপুর জেলায় সক্রিয়ভাবে যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালে জাতির পিতার হত্যাকা-ের প্রতিবাদে তিনি লক্ষ্মীপুর জেলায় গণ-আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন। ১৯৭২ সালে নবগঠিত লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৮৫ সালে লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। ২০০৯ সালে জনতা ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১১ সালে তিনি লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

পেশাগত জীবনে শাহজাহান কামাল একজন ব্যবসায়ী। ব্যবসার পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। বর্তমানে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য।  ১৯৭৩ সালে প্রথম সংসদে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য পরবর্তীতে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। বর্তমানে তিনি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি এবং সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে লক্ষ্মীপুরের উন্নয়নে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন শাহজাহান কামাল। অজাতশত্রু জনাব শাহজাহান কামাল জনগণের কাছাকাছি থাকতে পছন্দ করেন। তাঁর কাছে এলাকার সমস্যা নিয়ে গেলে তিনি তাদের সানন্দে গ্রহণ করেন, তাদের কথা ধৈর্য সহকারে শোনেন, সমস্যা সমাধানের সর্বাত্মক চেষ্টা করেন। জনাব শাহজাহান কামাল আপাদমস্তক একজন রাজনীতিবিদ। রাজনীতিকে মিশিয়ে নিয়েছেন জীবনের সাথে। ছাত্র-রাজনীতি দিয়ে অভিষেক হয়েছিল তাঁর রাজনৈতিক জীবনের। সে ধারাবাহিকতায় পরবর্তীতে তিনি রাজনৈতিক বিভিন্ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত হয়েছেন; স্থানীয় এবং জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ইস্যুতে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেছেন।

১৯৭৩ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে তৎকালীন সংসদে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে যুদ্ধবিধ্বস্ত, ধ্বংসপ্রাপ্ত দেশের ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট, পুল-কালভার্ট পুনঃনির্মাণে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে কাজ শুরু করেন। দলমত নির্বিশেষে সবার কাছে গ্রহণযোগ্য জনাব শাহজাহান কামাল জাতীয় সংসদ সদস্য হিসেবে দেশ-উন্নয়ন কার্যক্রমের পাশাপাশি নিজ জন্ম-এলাকার মানুষের সেবায় দিবানিশি নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

শাহজাহান কামাল লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজ ও লক্ষ্মীপুর সরকারি মহিলা কলেজ, জেলার শতাধিক স্কুল, কলেজ, মন্দির, মসজিদ, মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।

শাহজাহান কামাল জনতা ব্যাংকের ডিরেক্টর থাকাকালীন লক্ষ্মীপুরের গরিব-মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষা-সহায়তা হিসেবে ৩০ থেকে ৪০ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছেন। সর্বশেষ ২ জানুয়ারি থেকে পুরো বাংলাদেশী জাতি তারঁ মন্ত্রীত্বের নেতৃত্ব পেতে যাচ্ছে।

লক্ষ্মীপুর আরও সংবাদ

নির্বাচনকে ঘিরে লক্ষ্মীপুরে মাইক সার্ভিস ব্যবসায়ীদের ব্যস্ততা

শীতের আগমনে লক্ষ্মীপুরে লেপ-তোশক বিক্রি বাড়ছে

লক্ষ্মীপুর সাংবাদিক কল্যাণ সংস্থার কমিটি গঠন

লক্ষ্মীপুরে ইউনিয়ন ডিজিটাল কেন্দ্রের উদ্যোক্তার বাড়িতে হামলায় আহত-৭

কমলনগর উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি: আহবায়ক রাকিব হোসেন সোহেল

জলবায়ু ঝুঁকিতে লক্ষ্মীপুরের উপকূলীয় শিশুরা

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর ডটকম ২০১২ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক: সানা উল্লাহ সানু
রতন প্লাজা (৩য় তলা) , চক বাজার, লক্ষ্মীপুর-৩৭০০
ফোন: ০১৭৯৪-৮২২২২২,ইমেইল: news@lakshmipur24.com