সব কিছু
লক্ষ্মীপুর শুক্রবার , ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং , ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ৩রা রজব, ১৪৪১ হিজরী

ফেব্রুয়ারিতে লক্ষ্মীপুরে ৬ খুন

0
Share

ফেব্রুয়ারিতে লক্ষ্মীপুরে ৬ খুন

নিজস্ব প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুর জেলায় চলতি ফেব্রুয়ারি মাসের ১৩ দিনে বিভিন্ন স্থানে ছয় খুনের ঘটনা ঘটেছে। অভিযোগ উঠেছে অধিকাংশ খুনের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। এতে করে সাধারণ মানুষের মাঝে উদ্বেগ ও আতঙ্ক বিরাজ করছে।

জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গত ১ ফেব্রুয়ারি (শনিবার) সন্ধ্যায় লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর উপজেলার চর মোহনা ইউনিয়ন ভূমি অফিসের এমএলএসএস মো: রাকিব হোসেনের (২৫) লাশ সদর উপজেলার দালাল বাজার ইউনিয়নের খোয়াসা দিঘির পাড় এলাকার একটি পরিত্যাক্ত ঘর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পিতা ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা হুমায়ুন কবির বিপ্লব বাদি হয়ে ঘটনার পরের দিন বিকেলে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পাঁচজনকে আটক করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

৬ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলার কুশাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার মোহাম্মদ উল্যার লাশ স্থানীয় পোড়াখালী খালের পাশে পাওয়া যায়। নিহতের পরিবারের অভিযোগ একদল সন্ত্রাসী তাকে ঘটনার আগের দিন বুধবার রাতে ডেকে নিয়ে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে চলে যায়।

এ ঘটনার পরের দিন (শুক্রবার) নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে সদর থানায় ১২ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে পুলিশ মামলার এজাহারভুক্ত একজন আসামিকে গ্রেফতার করে।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার দুপুরে জেলার কমলনগর উপজেলার চর পাগলা গ্রামের একটি শস্য খেত থেকে আবদুর রহিম (৪২) নামে একজনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তার শরীরে বিভিন্ন আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। সে একই গ্রামের রমজান আলীর পুত্র। তবে এ ঘটনায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

একই দিন সকালে সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের মৃত শামছুল হকের পুত্র ও স্থানীয় যুবদল কর্মী মো: আবু আজ (৩৮) সন্ত্রাসীদের গুলিতে আহত হয়ে মারা যায়। এ ঘটনায় নিহতের ভাই হাবিব মাঝি অভিযোগ করে বলেন, ঘটনার আগের বৃহস্পতিবার নাছির বাহিনীর সদস্য রুবেল ও মিজানসহ ১০/১২ জন সন্ত্রাসী চন্দ্রগঞ্জ সমতা সিনেমা হলের পাশে গুলি করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী এশিয়া হাসপাতালে ভর্তি করার পর শুক্রবার সকালে আবু আজ মারা যায়।

৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে সদর উপজেলার বাঙ্গা খাঁ ইউনিয়নের রাধাপুর গ্রামের একটি সুপারী বাগান থেকে মাইক্রো চালক মুরাদুল ইসলাম সুমনের (৩০) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ব্যাপারে নিহতের ভাই মো: সোহেল অভিযোগ করে বলেন, ঘটনার তিন দিন পূর্বে একদল সন্ত্রাসী সুমনকে বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল যোগে নিয়ে যায়। এর পর থেকে সে নিখোঁজ। এ ঘটনায় কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

১৩ ফেব্রয়ারি (বৃহস্পতিবার) সকালে সদর উপজেলার দত্তপাড়া ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামের হেইন্যা জামে মসজিদের পাশ থেকে শাহাদাৎ হোসেন টিপুর (২৮) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত টিপু একই ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের খোকা মিয়ার পুত্র ও স্থানীয় যুবলীগ কর্মী।

স্থানীয়রা জানান, জসিম বাহিনীর সদস্যরা টিপুকে ধরে নিয়ে গুলি করে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে চলে যায়।

সদর আরও সংবাদ

লক্ষ্মীপুরে শুরু হয়েছে ‘মজিবর্ষ’ ফুটবল টুর্নামেন্ট

লক্ষ্মীপুরে দুই দিনব্যাপী তথ্যমেলার উদ্বোধন

লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশ সুপার দাবা প্রতিযোগিতার উদ্বোধন

লক্ষ্মীপুরে ৩দিন ব্যাপি বই মেলার উদ্বোধন

লক্ষ্মীপুরে আশুরা জেনারেল হাসপাতালের উদ্যোগে ফ্রি চিকিৎসা

শহীদ মিনারে লক্ষ্মীপুর অনলাইন সাংবাদিক ফোরামের শ্রদ্ধা

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার: লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর (২০১২-২০২০)
সম্পাদক ও প্রকাশক: সানা উল্লাহ সানু, উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকূল ইসলাম মন্টু
রতন প্লাজা(৩য় তলা), চক বাজার, লক্ষ্মীপুর-৩৭০০ |
ফোন: ০১৭৯৪-৮২২২২২ | ইমেইল: [email protected]