সব কিছু
লক্ষ্মীপুর বৃহস্পতিবার , ৩০শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং , ১৬ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ৪ঠা জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

লক্ষ্মীপুরে পুলিশ সদস্যের পরিবারকে হয়রানি

লক্ষ্মীপুরে পুলিশ সদস্যের পরিবারকে হয়রানি

লক্ষ্মীপুরে প্রয়াত পুলিশ সদস্য রুহুল আমিনের পরিবারের হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে। দলিল ও রেকর্ডপত্র অনুযায়ী পরিবারটি একটি জমি যুগ যুগ ধরে ভোগদখল করছে। হঠাৎ করে জমিটি দখলে নিতে প্রয়াত পুলিশ পরিবারের লোকজনকে হুমকি-ধমকি এবং ভুল তথ্য দিয়ে থানা পুলিশের মাধ্যমে হয়রানি করা হচ্ছে।

প্রয়াত পুলিশ সদস্যর বাড়ি সদর উপজেলার পশ্চিম সৈয়দপুর গ্রামে।

এ ঘটনায় রবিবার (৫ জানুয়ারি) বিকালে লক্ষ্মীপুর পুলিশ সুপার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দেন প্রয়াত পুলিশ সদস্যের ছেলে ও ভুক্তভোগী মো. মোশাররফ হোসেন বাবলু। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. রিয়াজুল কবির অভিযোগটি গ্রহণ করেন। এতে একই গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে আনোয়ার হোসেন হাওলাদার (৩৫), মনোয়ার হোসেন শাহীন (২৩) ও মো. সুজন (২০)-কে অভিযুক্ত করা হয়।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ৩ জানুয়ারি তারিখে নিজস্ব মালিকানাধীন ২৫ শতাংশ জমিতে বসতঘর নির্মাণ কাজ শুরু করেন প্রয়াত পুলিশ সদস্যের ছেলে ও ভুক্তভোগী মোশাররফ হোসেন বাবলু। কিন্তু তিনি হয়রানির শিকার হয়ে গত এক বছরেও বসতঘরটি নির্মাণ করতে পারেননি। অভিযুক্ত আনোয়ার হোসেন হাওলাদার ও তার ভাই মনোয়ার হোসেন শাহীন ও মো. সুজন অবৈধভাবে কাজটিতে বাধা দিচ্ছে। তারা ইতোমধ্যে নির্মাণ কাজে নিয়োজিত গাড়ি ভাঙচুর ও অন্যান্য সরঞ্জাম তছনছ করে শ্রমিকদের ভয়ভীতি দেখিয়েছে।

অভিযুক্ত শাহীন জমিটি নিয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মিস মামলা দায়ের করে। পরে আদালত মামলাটি খারিজ করে দেন। যার ফলে মোশাররফ হোসেন বাবলু জমিটিতে পুনঃরায় কাজ শুরু করার বৈধতা পান। কিন্তু অভিযুক্তরা আদালতের নির্দেশনা অমান্য করছে। তারা ভুল তথ্য দিয়ে বারবার থানা পুলিশের মাধ্যমে ভুক্তভোগী পরিবারটিকে হয়রানি করছে বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

ভুক্তভোগী মোশাররফ হোসেন বাবলু বলেন, ‘আমার জমিতে আমি বৈধ ও শান্তিপূর্ণভাবে বসতঘর নির্মাণ করতে পারছি না। কিন্তু আমি বসতঘর নির্মাণ করে মা, স্ত্রী-সন্তান ও ভাই-বোনদের নিয়ে থাকতে চাই। এজন্য আইনী সহায়তা চেয়ে পুলিশ সুপার মহোদয়ের নিকট লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।’

এদিকে অভিযুক্ত আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, আমরা কাউকে বসতঘর নির্মাণে বাধা দিচ্ছি না। তবে রামানন্দী মৌজার একাধিক খতিয়ান ও দাগের রেকর্ড সংশোধনের জন্য ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছি। মামলাটি চলমান রয়েছে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, প্রয়াত পুলিশ পরিবারের জমিটিতে বসতঘর নির্মাণে ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনাল বা আদালতের নিষেধাজ্ঞা নেই।

সদর আরও সংবাদ

লক্ষ্মীপুর সরকারি মহিলা কলেজ শিক্ষার্থীদের ‘ইন্ডাষ্ট্রিয়াল ট্যুর

লক্ষ্মীপুরে ট্রাক্টরচাপায় চালকের সহকারী নিহত

লক্ষ্মীপুরে কৃষি ব্যাংক কর্মকর্তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

লক্ষ্মীপুরে সুপারি গাছ কাটতে বাধা দেওয়ায় চাচীকে কোপালেন ভাতিজা

দালাল বাজার তারুণ্য সংঘের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

লক্ষ্মীপুরে দাখিল পরীক্ষার্থীদের জন্য দোয়া

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার: লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর (২০১২-২০২০)
সম্পাদক ও প্রকাশক: সানা উল্লাহ সানু, উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকূল ইসলাম মন্টু
রতন প্লাজা(৩য় তলা), চক বাজার, লক্ষ্মীপুর-৩৭০০ |
ফোন: ০১৭৯৪-৮২২২২২ | ইমেইল: [email protected]