সব কিছু
facebook lakshmipur24.com
লক্ষ্মীপুর শুক্রবার , ১০ই জুলাই, ২০২০ ইং , ২৬শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৮ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী
দক্ষিণাঞ্চলে নারিকেলের নতুন ক্ষতিকর মাকড় সনাক্ত - Lakshmipur24.com

দক্ষিণাঞ্চলে নারিকেলের নতুন ক্ষতিকর মাকড় সনাক্ত

দক্ষিণাঞ্চলে নারিকেলের নতুন ক্ষতিকর মাকড় সনাক্ত

বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলে (বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, খুলনা ও বাগেরহাট) নারিকেলে নতুন প্রজাতির একটি মাইট (মাকড়) সনাক্ত করেছেন পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কীটতত্ব বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আতিকুর রহমানের নেতৃত্বাধীন এক দল গবেষক। তারা নতুন প্রজাতির মাইটটির বৈজ্ঞানিক নাম দিয়েছেন Acarus cocosi Mondal, Rahman & Jahan, 2018।

নারিকেলে নতুন মাইট সনাক্তকরণ ও তার অর্থনৈতিক গুরুত্ব সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাইলে গবেষণা প্রধান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বলেন, ”বাংলাদেশে ২০০৪ সালে যশোরে সর্বপ্রথম নারিকেলে বাদামী রঙে শুকিয়ে যাওয়া বা নারিকেলের অসম বৃদ্ধি বা ফেটে যাওয়া লক্ষণ পরিলক্ষিত হলেও ২০০৬ সালে যশোরে (RARS (BARI) সর্বপ্রথম নারিকেলে ইরায়োফাইড মাইটের (Aceria guerreronis ) আক্রমন সনাক্ত করেন। কিন্তু নারিকেলে এধরনের আক্রমন শুধু কী একটি প্রজাতির ইরায়োফাইড মাইটের (Aceria guerreronis ) আক্রমনে হচ্ছে নাকি ভিন্ন কোন প্রজাতির উপস্থিতি আছে, তা অনুসন্ধানে আমাদের গবেষক দল পবিপ্রবি’র রিসার্চ এন্ড ট্রেনিং সেন্টারের আর্থিক অনুদানে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করেন এবং নারিকেলের বৃতির নীচে এবং আক্রান্তস্থান থেকে দুটি প্রজাতির মাইট সনাক্ত করেন যার একটি বিশ্বে নতুন প্রজাতি: Acarus cocosi sp. nov. ও

অন্যটি বাংলাদেশে প্রথম রেকর্ড করা হয়েছে: Sancassania (Caloglyphus) berlesei)। দক্ষিণ কোরিয়ার কিয়ংপুক ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইনসেক্ট মলিকুলার ফিজিওলজি ল্যাবের সহযোগীতায় নতুন সনাক্তকৃত মাইট দুটির জিনোম সিকুয়েন্স (আংশিক) সম্পন্ন করে ঘঈইও জিন ব্যাংকে জমা রাখা হয়েছে। এ গবেষণার মাধ্যমে সুস্পষ্টভাবে প্রমানিত হলো যে নারিকেলে এধরনের আক্রমন শুধু একটি প্রজাতির ইরায়োফাইড মাইটের (Aceria guerreronis) আক্রমনে হচ্ছে না বরং ভিন্ন প্রজাতির মাইটেরও উপস্থিতি রয়েছে। আমাদের গবেষণা দল শুধু প্রজাতি সনাক্তকরণই নয় বরং কীভাবে তার বিস্তার প্রতিরোধ করা যায় তা নিয়ে কাজ করছেন। কারন এই মাইটের মারাত্মক আক্রমনের কারনে প্রায় ৬০% ফলন এবং ৩৬% নারিকেলের শুষ্ক শাঁস কমে যায়।” এ গবেষণা দলের অন্যান্য গবেষক হলেন প্রফেসর ড. এস. এম. হেমায়েত জাহান, প্রফেসর ড. কিয়ং ইয়ল লী, পিংকী মন্ডল ও পিযূষ কান্তী ঝাঁ।

লক্ষ্মীপুর সংবাদ আরও সংবাদ

লক্ষ্মীপুরে নদী সংলগ্ন এলাকায় সাড়ে সাত হাজার গাছের চারা বিতরন

লক্ষ্মীপুরে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে যাত্রা শুরু করলো “আল-খিদমাহ্ ফাউন্ডেশন”

লক্ষ্মীপুর পৌর মহিলা আওয়ামীলীগের মানববন্ধন

‘লুট মামলায়’ লক্ষ্মীপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্পাদক গ্রেপ্তার

লক্ষ্মীপুরে পরিবহন চাঁদাবাজ দুই তরুণ জেলে

লক্ষ্মীপুর-নোয়াখালী সীমানা বিরোধের জের: রামগতির মাছ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার: লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর (২০১২-২০২০)
সম্পাদক ও প্রকাশক: সানা উল্লাহ সানু, উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকূল ইসলাম মন্টু ।
রতন প্লাজা(৩য় তলা), চক বাজার, লক্ষ্মীপুর-৩৭০০।
ফোন: ০১৭৯৪-৮২২২২২, ইমেইল: [email protected]