সব কিছু
লক্ষ্মীপুর বুধবার , ১লা এপ্রিল, ২০২০ ইং , ১৮ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ৭ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্টের মুখে রামগতি

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্টের মুখে রামগতি

332
Share

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্টের মুখে রামগতি

সোমবার (২৮জানুয়ারি) বিকালে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতির ভাষণে প্রেসিডেন্ট ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মো. আবদুল হামিদ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বক্তব্য রাখেন। বক্তব্যের  এক পর্যায়ে তিনি লক্ষ্মীপুরের রামগতির কথা উল্লেখ করেন।

অন্যান্য গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, বক্তব্যে তিনি বলেন,

জাতির পিতা ১৯৭২ সালের ২০শে ফেব্রুয়ারি লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে কৃষি বিপ্লবের ডাক দিয়ে বলেছিলেন, সংগ্রাম এখনো শেষ হয়নি, মূলত সংগ্রাম মাত্র শুরু হয়েছে। এবারের সংগ্রাম সোনার বাংলা গড়ে তোলার সংগ্রাম। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে বুকে ধারণ করে দেশ গড়ার কাজে আত্মনিয়োগ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন,  বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে মূলত জ্ঞানচর্চা, মুক্তচিন্তা আর মানবিক মূল্যবোধ বিকাশের ক্ষেত্র। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিকে অগ্রাধিকার দিয়ে নতুন নতুন জ্ঞানের ক্ষেত্র ও সে বিষয়ে কার্যকর, প্রাসঙ্গিক ও ব্যবহারিক কার্যক্রম প্রণয়ন করতে হবে। পাঠদানের পাশাপাশি গুণগত মানসম্পন্ন গবেষণার মাধ্যমে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা যাতে বাংলাদেশের সম্পদ ও সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে দেশের অগ্রযাত্রায় শামিল হতে পারে তার উদ্যোগ নিতে হবে।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, অর্থমন্ত্রী ও সমাবর্তন বক্তা আ হ ম মুস্তফা কামাল এমপি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী এমপি, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড, কাজী শহীদুল্লাহ এবং স্বাগত বক্তব্য রাখেন, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এমরান কবির চৌধুরী। প্রেসিডেন্ট বলেন, বর্তমান যুগ তথ্য-প্রযুক্তির যুগ। এ সময়ে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে আধুনিক ও প্রযুক্তি জ্ঞানে সমৃদ্ধ হতে হবে। দেশের বিশাল তরুণ সমাজকে দক্ষ মানবসম্পদে পরিণত করার জন্য আনুপাতিক হারে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার কোনো বিকল্প নেই।

এই বিবেচনায় বর্তমান সরকার প্রায় প্রতিটি জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে প্রেসিডেন্ট বলেন, তোমরা আজ দেশের উচ্চতর মানবসম্পদ। দেশের ভবিষ্যৎ উন্নয়ন ও অগ্রগতি নির্ভর করছে তোমাদের উপর। তোমাদের তারুণ্য, জ্ঞান, মেধা ও প্রজ্ঞা হবে দেশের উন্নয়নে প্রধান চালিকাশক্তি। তোমরা ন্যায় ও সত্যকে সমুন্নত রাখবে। নৈতিকতা ও দৃঢ়তা নিয়ে দুর্নীতি ও অন্যায়ের প্রতিবাদ করবে। বিবেকের কাছে কখনো পরাজিত হবে না। তোমরা পৃথিবীর যে প্রান্তেই থাকো না কেন এ বিশ্ববিদ্যালয় এ দেশের মাটি ও মানুষকে ভুলবে না। মনে রাখতে হবে, বাঙালির শেকড় এই সাধারণ জনগণের মধ্যেই প্রোথিত।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ১৩ বছর পর উক্ত প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে নিবন্ধন করা ২ হাজার ৮৮৮ জন গ্র্যাজুয়েটকে প্রেসিডেন্ট ডিগ্রি প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে ১৪ জন শিক্ষার্থীকে চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক প্রদান করেন প্রেসিডেন্ট।

দেশে বিদেশে আরও সংবাদ

লক্ষ্মীপুরে জনস্বার্থে আর জনসেবায় সেনাবাহিনী

বাস, ট্রেন, লঞ্চ, ফেরিসহ সব ধরনের যাত্রী পরিবহন বন্ধ

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বিরতিহীন প্রচারণা চালাচ্ছে কমিউনিটি রেডিওগুলো

সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় লক্ষ্মীপুরের যুবক নিহত

৪র্থ বার জাতিসংঘের ডব্লিউএসআইএস পুরষ্কার লাভ করলো বিএনএনআরসি

৫ম বারের মতো জাতিসংঘের ডব্লিউএসআইএস ফোরামের প্যানেল আলোচক, এএইচএম বজলুর রহমান

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার: লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর (২০১২-২০২০)
সম্পাদক ও প্রকাশক: সানা উল্লাহ সানু, উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকূল ইসলাম মন্টু
রতন প্লাজা(৩য় তলা), চক বাজার, লক্ষ্মীপুর-৩৭০০ |
ফোন: ০১৭৯৪-৮২২২২২ | ইমেইল: [email protected]