সব কিছু
লক্ষ্মীপুর বৃহস্পতিবার , ৩০শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং , ১৬ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ৪ঠা জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

এক বছরের মধ্যে উপকূলীয় অঞ্চলে প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধ: হাইকোর্ট

এক বছরের মধ্যে উপকূলীয় অঞ্চলে প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধ: হাইকোর্ট

দেশের উপকূলীয় এলাকাসহ স্থানীয় হোটেল, মোটেল ও রেস্তোরায় পলিথিন এবং একবার ব্যবহার্য প্লাস্টিক (ওয়ান টাইম) পণ্যের ব্যবহার বন্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোকে এক বছর সময় বেঁধে দিয়েছেন হাইকোর্ট। সংবাদটি দিয়েছে বাংলা দৈনিক সমকাল ।

এ সময়ের মধ্যে দেশের উপকূলীয় এলাকায়, পলিথিন বা প্লাস্টিক ব্যাগ এবং একবার ব্যবহার্য প্লাস্টিক পণ্যের ব্যবহার, বহন, বিক্রি ও বাজারজাতকরণ বন্ধ করতে হবে। পাশাপাশি আইন অনুসারে নিষিদ্ধ পলিথিন বা প্লাস্টিক ব্যাগের ব্যবহার বন্ধের বিষয়টিও কঠোরভাবে কার্যকর করতে বাজার তদারকি, উৎপাদন, কারখানা বন্ধ ও যন্ত্রপাতি জব্দ করারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ সোমবার রুলসহ এই আদেশ দেন।

আদেশ অনুসারে, আগামী ২০২১ সালের ৫ জানুয়ারির মধ্যে হলফনামা আকারে আদালতের আদেশ বাস্তবায়নের বিষয়ে বিবাদীদের প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে। ওই বছরের ১০ জানুয়ারি বিষয়টি ফের আদেশের জন্য হাইকোর্টের কার্যতালিকায় আসবে।

বিবাদীরা হলেন- পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব, শিল্প সচিব, বাণিজ্য সচিব, পানি সম্পদ সচিব, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন সচিব, বস্ত্র ও পাট সচিব, পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, এবং বাংলাদেশ প্লাস্টিক দ্রব্য প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশন।

পলিথিন বা প্লাস্টিক ব্যাগ ও একবার ব্যবহার্য প্লস্টিক পণ্যের যত্রতত্র ব্যবহার, উৎপাদন ও বিক্রির বৈধতা নিয়ে গত ১৭ ডিসেম্বর বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতিসহ (বেলা) ১১টি সংগঠন হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন। এদিন ওই রিটের শুনানি নিয়ে রুলসহ আদেশ দেন হাইকোর্ট।

রিটকারী অন্য সংগঠনগুলো হলো- এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড সোস্যাল ডেভেলাপমেন্ট অর্গানাইজেশন (এসডো), পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা), ইয়ুথ এনভায়রনমেন্ট সোসাইটি (ইয়ুথ), সেভ দি কোস্টাল পিপলস্‌ (স্কোপ), রীচ টু আন রীচ (রান), বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্ট এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি (বেডস), ইনিশিয়েটিভ ফর রাইটভিউ (আইআরভি), এ্যাসোসিয়েশন ফর কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট (এসিডি), সেল্‌ফ হেল্‌প এন্ড এ্যাডভান্সড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (শ্যাডো) এবং সিলেট ও সেবা ফাউন্ডেশন।

রুলে আইনের অনুসারে নিষেধ পলিথিন বা প্লাস্টিক ব্যাগ ও একবার ব্যবহার্য প্লাস্টিক সামগ্রীর ব্যবহার বন্ধে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভুত হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি পলিথিন বা প্লাস্টিক ব্যাগ এবং একবার ব্যবহার্য প্লাস্টিক পণ্যের নিরাপদ বিকল্প নিরূপণে ২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্য কেন একটি কর্মপরিকল্পনা নেওয়া হবে না তাও রুলে জানতে চাওয়া হয়েছে। বন ও পরিবেশ সচিব, শিল্প সচিব, বাণিজ্য সচিব, বস্ত্র ও পাট সচিবসহ আট বিবাদীকে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন বেলার প্রধান নির্বাহী আইনজীবী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী সাঈদ আহমেদ কবীর। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সাইফুদ্দিন খালেদ।

রিটে বলা হয়, পরিবেশ অধিদপ্তরের জরিপ অনুযায়ী বাংলাদেশে প্রতি বছর ১০ লাখ ৯৫ হাজার টন প্লাস্টিক বর্জ্য উৎপাদিত হয়। এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড সোস্যাল ডেভেলাপমেন্ট অর্গানাইজেশনের (এসডো) জরিপ অনুযায়ী বার্ষিক ৮৭ হাজার টন একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক বাংলাদেশে ব্যবহৃত হয়। দেশে ব্যবহৃত একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে-প্লাস্টিকের স্ট্র, কটনবাড, ফুড প্যাকেজিং, ফুড কনটেইনার, বোতল, প্লেট, প্লাস্টিক চামচ, প্লাস্টিক ব্যাগ ইত্যাদি।

মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার ও বর্জ্য অব্যবস্থাপনার কারণে এসব প্লাস্টিক কৃষি জমি, পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা, নদী-নালা, খাল-বিল ও সমুদ্রে পতিত হয়ে পরিবেশ ব্যবস্থার মারাত্মক ক্ষতি করে।

ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক-এর গবেষণা প্রতিবেদন অনুযায়ী পদ্মা নদীর মাধ্যমে প্রায় ৩০০ ধরনের প্লাস্টিক পণ্য বঙ্গোপসাগরে পতিত হয়। জাতিসংঘের পরিবেশ কর্মসূচির প্রতিবেদন অনুযায়ী পদ্মা, মেঘনা এবং যমুনা নদীর মাধ্যমে প্রায় ৭৩ হাজার টন প্লাস্টিক বর্জ্য বঙ্গোপসাগরে পতিত হয়। সবচেয়ে উদ্বেগের বিষয় বঙ্গোপসাগরে মাছের পেটে এবং লবণের মধ্যে ক্ষুদ্র প্লাস্টিকের অস্বিস্ত পাওয়া গেছে যা প্রাণিকুল ছাড়াও মানব স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক হুমকিস্বরূপ। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ একবার ব্যবহার্য প্লাস্টিক সামগ্রী নিয়ন্ত্রণ ও রোধে বিভিন্ন আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করলেও বাংলাদেশ এ বিষয়ে কোন উদ্যোগ গ্রহণ করেনি।

দেশে বিদেশে আরও সংবাদ

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্টের মুখে রামগতি

লক্ষ্মীপুরে ধর্মান্তরিত সেই ১২ ব্যক্তিকে ভারতে প্রেরণ

লক্ষ্মীপুরের আজাদ ভূঁইয়া কমিউনিটি পুলিশিং চট্রগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ সংগঠক

এক বছরের মধ্যে উপকূলীয় অঞ্চলে প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধ: হাইকোর্ট

আমিরাতে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালে লক্ষ্মীপুরের জয়

প্রধানমন্ত্রীসহ সরকারের উচ্চ মহলে উপকূল দিবসের দাবি

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার: লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর (২০১২-২০২০)
সম্পাদক ও প্রকাশক: সানা উল্লাহ সানু, উপদেষ্টা সম্পাদক: রফিকূল ইসলাম মন্টু
রতন প্লাজা(৩য় তলা), চক বাজার, লক্ষ্মীপুর-৩৭০০ |
ফোন: ০১৭৯৪-৮২২২২২ | ইমেইল: [email protected]