রায়পুরে অপহৃত কলেজ ছাত্রী উদ্ধার হয়নি: গ্রেফতার ১

রায়পুর প্রতিনিধিঃ রায়পুরে অপহৃত কলেজ ছাত্রী ৪ দিনেও উদ্ধার হয়নি মেধা বিকাশ সাহা রূপা (১৯) নামের এইচ এস সি পাশ এক কলেজ ছাত্রী। এ ঘটনায় শহরের মধ্য বাজারের ব্যবসায়ী ও ওই ছাত্রীর পিতা লিটন সাহা অপহরন কারী দোলন কুট্ট্রি সহ ৬ জন কে আসামী করে থানায় অপহরন মামলা করেছেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মঙ্গলবার রাতে জিবন কুট্ট্রি নামের একজন কে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে বুধবার সকালে কারাগারে প্রেরন করেছেন।

মামলার এজাহারে জানা যায়, গত ১৯ অক্টোবর দুপুরে রায়পুর সরকারী ডিগ্রী কলেজ থেকে মেধা বিকাশ সাহা এইচএসসির সনদ পত্র নিয়ে বাসার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। আলিয়া মাদ্রাসা সংলগ্ন ফরিদগঞ্জ সিএনজি অটোরিক্সার টার্মিনালে পৌঁছলে বখাটে দোলন তার সহযোগীদের নিয়ে মেধাকে হাত মুখ বেধে মাইক্রো গাড়িতে তুলে অপহরন করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় ওই দিন রাতে তার পিতা লিটন সাহা বাদী হয়ে রায়পুর থানায় শহরের মধ্য বাজারের দোলন কুট্ট্রি, জিবন কুট্ট্রি, সাগর ঘোষ, কার্তিক কুট্ট্রি, নুকুল কুট্ট্রি ও প্রদীপ দাসকে আসামী করে অপহরন মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে ছানা লাল কুট্ট্রির ছেলে বখাটে জিবন কুট্ট্রিকে শহরের একটি চায়ের দোকান থেকে গ্রেপ্তার করে।

এই ঘটনায় অপহৃত মেধার পিতা লিটন সাহা বলেন, তার মেয়েকে ৬ বখাটে মিলে অপহরন করে কোথায় রেখেছে তা খুজে বেড়াচ্ছি। মেয়েকে হারিয়ে পরিবারের সবাই খাওয়া দাওয়া ছেরে দিয়েছে।

অভিযুক্ত বখাটে দোলনের পিতা ছানা লাল কুট্ট্রি জানান, এই ঘটনায় তিনি বা তার পরিবার কিছুই জানেন না। ওই ছাত্রীর পরিবার তাদেরকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে বলে দাবী করেন।

রায়পুর থানার এসআই ফোরকান হোসেন বলেন, অপহরন মামলায় ১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামী সহ কলেজ ছাত্রী মেধা বিকাশকে খোঁজা হচ্ছে। তবে কেউ মুক্তিপন চায়নি বলে যানান।