সব কিছু
লক্ষ্মীপুর মঙ্গলবার , ১৮ই জুন, ২০১৯ ইং , ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৫ই শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী

মেঘনাবুকের চর ও তীরবর্তী খালগুলোতে ধরা পড়ছে প্রচুর “কোরাল মাছ”

মেঘনাবুকের চর ও তীরবর্তী খালগুলোতে ধরা পড়ছে প্রচুর “কোরাল মাছ”

জুনায়েদ আল হাবিবঃ লক্ষ্মীপুরের কমলনগর ও রামগতি উপজেলার মেঘনা বুকে জাগা নতুন চর এবং তীরের খালগুলোতে ধরা পড়ছে প্রচুর পরিমাণে ঐতিহ্যবাহী বিলুপ্ত প্রজাতির কোরাল মাছ। সে সুযোগে যারা ইতোমধ্যে কোরাল মাছ ভুলে গেছেন তাদের খাদ্য তালিকায় ফিরে এসেছে ঐতিহ্যবাহী সুস্বাদু এ মাছটি। দামও মোটামুটি ক্রেতাদের নাগালেই বিক্রি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কয়েকজন কোরাল ক্রেতা।
koralস্থানীয়রা জানায়, এক সময় “কোরাল” গ্রাম বাংলার একটি সুপরিচিত মাছ ছিল। মাছটি দেখতে প্রায় ইলিশের মতোই সাদা ও বিভিন্ন রঙ্গে রঙ্গিন আবরণে ঘেরা চকচকে দেহ। দেখতে যেমন আকর্ষণীয় তেমনি খুবই সুস্বাদু। দেশে বর্তমানে এ মাছটি খুব কমই দেখা যায়। কিন্তু বেশ কিছু দিন ধরে লক্ষ্মীপুরের মেঘনাতীরের বিভিন্ন খালগুলোতে ধরা প্রচুর পরিমাণে পড়ছে “কোরাল” মাছ।
খালে জাগদিয়ে মাছ শিকার করে এমন কয়েকজন শিকারি জানান, বর্ষা ঋতুতে সৃষ্ট পানির সঙ্গে খাল ও পুকুর গুলোতে প্রবেশ করে “কোরাল” মাছ। তখনই মাছ গুলো ধরার জন্য মরিয়া হয়ে উঠে স্থানীয় মাছ শিকারীরা।
জানতে চাইলে স্থানীয় কয়েকজন মাছ শিকারী জানায়, “মেঘনা তীরের খাল গুলোতে কাঁটা জাতীয় গাছের ডাল দিয়ে জাগ তৈরি করে মাছ আশ্রয়ের উপযোগী করা হয়। সপ্তাহের মতো সময় অপেক্ষার পর জোয়ারের সাথে আগত বিভিন্ন মাছের সঙ্গে পানির উপস্থিতিতে কোরাল গুলো জাগে আশ্রয় নেয়। পরে খালে পানি কমে গেলে জাগের চারপাশে জাল দিয়ে অবরোধ সৃষ্টি করে খুব সহজে ধরা যায় জাগের “কোরাল”সহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ”।

মেঘনায় কি পরিমাণ কোরাল পাওয়া যায় জানতে চাইলে মেঘনার জেলে মোঃ মোক্তার হোসেন (২৪) বলেন, ” দীর্ঘ ৮ বছর যাবত নদীতে মাছ ধরে আসছি। আগে মাঝে মধ্যে ইলিশের সাথে একটা-দুইটা কোরাল পাওয়া যায় যেতো। কিন্তু ইদানিং একটু বেশি পাওয়া যাচ্ছে।
কোরাল ক্রেতা কমলনগরের চর লরেঞ্চ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ওমর ফারুক দোলন জানান, গত সপ্তাহে তিনি রামগতির আলেকজান্ডার বাজার থেকে ৭ হাজার টাকা দিয়ে ১৪টি কোরাল কিনেছেন যে গুলোর ওজন প্রায় ৯ কেজি।
কমলনগরের সাহেবের হাট ঘাটের মাছ ব্যবসায়ী বেলায়েত হোসেন জানান, এখন “প্রতি কেজি “কোরাল” মাছ ৪’শ-৫’শ টাকা পাওয়া যায় কিন্তু তা বছরের যে কোন সময় পাওয়া যায়না”। মতিরহাট মাছঘাটের সভাপতি মেহেদী হাসান লিটন জানান, কমলনগরের “বাতিরখাল”, মতিরহাট হয়ে তোরাবগঞ্জ সড়কের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া জয়বাংলা খাল, এমপির খাল, পাটাওয়ারীরহাট খালসহ রামগতি-কমলনগরের বিভিন্ন খালে এবার দেখা মিলছে”কোরাল”।

অন্যদিকে ঐতিহ্যবাহী কিন্তু বিলুপ্ত এ মাছটি আবার ফিরে আসায় স্থানীয় ক্রেতাদের মধ্যে দেখা দিয়েছে নতুন আসা। তাই সচেতন নাগরিকদের মধ্যে এ মাছটি নিয়ে আসা সৃষ্টি হয়েছে । তারা জানান বিলুপ্ত এবং ঐতিহ্যবাহী এ মাছটি প্রজনেনর জন্য অভয় আশ্রম তৈরি করা দরকার।

লক্ষ্মীপুর আরও সংবাদ

অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ায় লক্ষ্মীপুরে ঢাকা এক্সপ্রেস, ইকোনো, জোনাকী পরিবহনকে জরিমানা

লক্ষ্মীপুরে নির্মিত হচ্ছে দেড় লাখ গ্যালন ধারণ ক্ষমতার পানির ট্যাংক

রায়পুরে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীকে ফেরাতে ব্যর্থ, যুবকের আত্মহত্যা

লক্ষ্মীপুরে কারারক্ষীদের মারধর করে ছাত্রদল নেতা কারাগারে

রামগতি স্টুডেন্ট কমিউনিটি ঢাকা‘র উদ্যোগে মেঘনা বীচে পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচী

রামগতি স্টুডেন্ট কমিউনিটি ঢাকা‘র উদ্যোগে কৃতি সংবর্ধনা; নতুন কমিটি গঠন

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর ডটকম ২০১২ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক: সানা উল্লাহ সানু
রতন প্লাজা (৩য় তলা) , চক বাজার, লক্ষ্মীপুর-৩৭০০
ফোন: ০১৭৯৪-৮২২২২২,ইমেইল: [email protected]