সব কিছু
লক্ষ্মীপুর মঙ্গলবার , ২৩শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং , ১০ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১৭ই শাবান, ১৪৪০ হিজরী

শীতে রামগতির তেগাছিয়া বাজার সুইস গেইট এলাকায় প্রকৃতি প্রেমিদের ভীড়

শীতে রামগতির তেগাছিয়া বাজার সুইস গেইট এলাকায় প্রকৃতি প্রেমিদের ভীড়

turist-ramgotiমিসু সাহা নিক্কন: লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার ৯নং চরগাজী ইউনিয়নের তেগাছিয়া বাজার সুইস গেইট  এলাকায় এখন এখানে প্রকৃতিপ্রেমি ও ভ্রমণ পিপাসুদের আনাগোনা থাকে সময়। কিন্তু এবার শীত মৌসুমে ভ্রমণ পিপাসুদের ভিড়ে চেনার  কোন উপায় নেই যে এটা কি কক্সবাজার নাকি পতেঙ্গা । আসলে জায়গাটি লক্ষ্মীপুরের রামগতি মেঘনা সৈকত। যেকোন বিশেষ দিনে এই  স্থানে ব্যাপক মানুষের সমাগম থাকে। বিভিন্ন অঞ্চল থেকে বেড়াতে আসে ভ্রমণ পিপাসু লোকজন।

আর হাতের কাছে এমন সুন্দর, নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখতে রাজধানীসহ দেশের নানা জায়গা থেকে বিভিন্ন  শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এলাকাটি। ভ্রমণ পিপাসু কমলনগরের রিফাতের  অভিমত হচ্ছে, মেঘনা নদীর কোল ঘেঁষা প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর নিরিবিলি এই স্থানে যে কারো মন ভালো হয়ে যায়। মেঘনা নদীর কলকল ধ্বনি এক মহিমা তৈরি করে মনে। রিফাত আরো জানান তিনি প্রতি বছর শীতেই তেগাছিয়া যান প্রকৃতির সান্নিধ্যে।

news pic (1).jpg

তার মতে এখানে আসার উত্তম সময়ই হলো শীতকাল । দর্শনার্থীদের জন্য প্রবেশ মূল্য বিহীন প্রাকৃতিক মনোরম দৃশ্যমাখা গ্রামীণ পরিবেশ কে বনভোজন বা শিক্ষা সফরের  স্থান হিসেবেও নির্বাচন করছে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ভ্রমণ পিপাসু দল।

কমলনগরের ভিন্ন ধারার নতুন মাধ্যমিক  শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল স্কুল এন্ড কলেজের ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান মো: হুমায়ুন কবির জানান, ২০১৫ সালের জানুয়ারী মাসে আমাদের বিদ্যালয়ের শিক্ষা সফর ছিল ওই স্থানটি । জায়গাটি সত্যিই মনোরম। তিনি বলেন , তেগাছিয়া ছাড়াও পাশাপাশি টাংকি বাজার না গেলে আপনি বুঝবেনই না লক্ষ্মীপুরে এত সুন্দর জায়গা আছে।

সুবিধা: তেগাছিয়ার সুইস গেইটের নদীর পাড়ের ব্লক গুলোতে বসে আপন মনে ভাবতে পারেন আপন মনে, দেখতে পারেন সূর্যাস্তের মত অপরুপ দৃশ্য।  পাশে রয়েছে ৩০ হাজার ঝাউগাছের গভীর বন। রয়েছে খেলাধূলা করার মত পরিবেশ। নদীতে ভ্রমন করার মত নৌকার ব্যবস্থা সবসময় না থাকলেও ওখানে থাকা নৌকার মালিকদের সাথে আলাপ করে তা ব্যবস্থা করা সম্ভব।

news pic.jpg

প্রতিকূল: থাকার মত আবাসিক হোটেল হয়তো নেই এখানে কিন্তু টিম নিয়ে আসলে ঝাউ বনের মধ্যে অথবা খোলা আকাশের নিচে তাম্বু দিয়ে থাকার জায়গার অভাব হবে না। অথবা হয়ে যেতে পারেন ন্যাশনাল জিওগ্রাফির বেয়ার গ্রিলইসের মতো। বনভোজনের জন্য সুন্দর স্থান এটি, একসাথে কয়েক হাজার লোক এখানে ভ্রমন করতে পারবে। যদিও আশেপাশে ভালো মানের বাজার নেই ।তাই আসার সময় সব প্রস্তুতি নিয়ে আসতে হবে।

স্লুইস গেইট যে ভাবে যাবেন : নিজস্ব পরিবহন বা যাত্রীবাহী বাসে করে লক্ষ্মীপুর হয়ে রামগতি বাজার নামতে হবে। পরে রামগতি বাজার থেকে রামগতি-মোহাম্মপুর অঞ্চলিক সড়কের ব্রিজের মাথা এলাকায় নেমে রিক্সায় বেড়ী দিয়ে ১কি.মি অথবা তেগাছিয়া বাজার পর্যন্ত সোজা গাড়ি চালিয়ে বেড়ী দিয়েও ওই স্থানে যাওয়া যায়।

যদি নোয়াখালী দিয়ে আসেন তাহলে সোনাপুর থেকে মন্নাননগর চৌরাস্তা হয়ে ভূঁয়ারহাট পোলের একটু সামনে রাস্তার মাথা নামক স্থান দিয়ে পূর্ব দিকে টাংকী বাজার হয়ে বেড়ী দিয়ে আসা যায়।

রামগতিতে আরো দেখুন:

প্রকৃতিকে খুব কাছ থেকে উপভোগ করতে চাইলে লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে  স্লুইস গেইট ছাড়াও রয়েছে রামগতি বাজার সংলগ্ন মেঘনা নদীর পাড়, আলেকজান্ডার আদালত ঘাটস্থ মেঘনার পাড়। এ স্পটগুলোও পর্যটন কেন্দ্র হিসাবে সম্ভাবনার কথা বলে।

এলাকাবাসির প্রত্যাশা: সরকারি অথবা বে-সরকারি সঠিক উদ্যোগে স্লুইস গেইট হয়ে যেতে পারে একটি পর্যটন কেন্দ্র। সরকারি অথবা বেসরকারি  কর্তৃপক্ষ একটু সুদৃষ্টি দিলে এ অঞ্চলের উপকূলের বঞ্চিত মানুষগুলো কিছু সুবিধা পাবে।

পর্যটন আরও সংবাদ

শরতে অপরূপ সৌন্দর্য মেলেছে লক্ষ্মীপুরের `মতিরহাট মেঘনা সৈকত’

নোয়াখালীতে পর্যটক টানতে ১শ৬৮ কোটির প্রকল্প: রয়েছে লক্ষ্মীপুর-চরআলেকজান্ডার-সোনাপুর সড়কও

“আলেকজান্ডার মেঘনা সৈকত” যেন আরেক কক্সবাজার

লক্ষ্মীপুরের পাশের জেলা ভোলাতে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সর্বোচ্চ জ্যাকব টাওয়ার

ঈদের ছুটিতে নির্বিঘ্ন হোক রামগতির মেঘনা তীর

দর্শনার্থীদের নজরে লক্ষ্মীপুরের ইলিশ স্কয়ার

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর ডটকম ২০১২ - ২০১৮
সম্পাদক ও প্রকাশক: সানা উল্লাহ সানু
রতন প্লাজা (৩য় তলা) , চক বাজার, লক্ষ্মীপুর-৩৭০০
ফোন: ০১৭৯৪-৮২২২২২,ইমেইল: [email protected]