লক্ষ্মীপুরে দরিদ্র স্কুল শিক্ষার্থীদের জন্য “স্বপ্ন নিয়ে”র বর্ণিল ছাতা

মিসু সাহা নিক্কন,নিজস্ব প্রতিনিধি:  রোদ-বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রতিদিন স্কুলে যাতায়াত করে উপকূলের হাজার হাজার শিক্ষার্থী। নানান প্রতিকূল পরিবেশের মধ্যদিয়ে তাদের পথচলা। কখনো রোদে পুড়ে কিংবা বৃষ্টিতে ভিজে স্কুলের নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আসতে হয়। দারিদ্রতার কারণে স্কুলের অনেক শিক্ষার্থী ছাতা নিয়ে স্কুলে আসতে পারে না।
মানবতার কল্যাণে নিবেদিত ব্যতিক্রমধর্মী প্লাটফর্ম “স্বপ্ন নিয়ে” অনেকগুলো স্কুলের মধ্যে থেকে বেছে লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার বড়খেরী ইউনিয়নের রামগতি আছিয়া বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়টিকে।

শনিবার (২৫ আগস্ট) সকালে রামগতি আছিয়া বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শ্রেণীকক্ষে অর্ধশতাধিক ছাত্রীর হাতে তুলে দেওয়া হয় নতুন বর্ণিল ছাতা। আকর্ষনীয় ছাতা পেয়ে খুশিতে মাতোয়ারা হয় শিক্ষার্থীরা।
ছাতা বিতরণী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, স্বপ্ন নিয়ে’র অতিথি মীর খবির আহমেদ, হাছান মাহমুদ, প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান সমন্বয়ক আশরাফুল আলম হান্নান, সভাপতি আ হ ম ফয়সল, সাধারণ সম্পাদক মীর তানভীর, সমন্বয়ক (স্বাস্থ্য) আরাফাত হোসেন, সমন্বয়ক (আইটি) পারভেজ অনিক, সমন্বয়ক (পরিবেশ) আনোয়ার পাটোয়ারি, সাংবাদিক মিসু সাহা নিক্কন, হারুনর রশিদ, মো: ইব্রাহিম খলিল, ঝলক সাহা, রাশেদ আহমেদ প্রমুখ।
এসময় প্রধান শিক্ষক আবদুর রাজ্জাক বলেন, আমার স্কুলের প্রায় সবাই নদীভাঙ্গা পরিবারের সন্তান, তাই তাদের স্বাধ থাকলেও সামর্থ নেই। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “স্বপ্ন নিয়ে” এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনিয়।

সভাপতি আ হ ম ফয়সল বলেন, সমাজের সবাই যার যার অবস্থান থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলে একটি অন্যরকম তথা দেশ গড়ে উঠবে।