সব কিছু
facebook lakshmipur24.com
লক্ষ্মীপুর রবিবার , ১৪ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৩০শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
রামগতির জামাই-শ্বশুরের সেই গরু-মহিষ দ্বন্দ্বের অবশেষে অবসান - Lakshmipur24.com

রামগতির জামাই-শ্বশুরের সেই গরু-মহিষ দ্বন্দ্বের অবশেষে অবসান

রামগতির জামাই-শ্বশুরের সেই গরু-মহিষ দ্বন্দ্বের অবশেষে অবসান জামাই-শ্বশুর

লক্ষ্মীপুরের রামগতির জামাই-শ্বশুরের গরু-মহিষ দ্বন্দ্ব অবশেষে অবসান হলো । ১৭টি মহিষের মধ্যে জামাই পেয়েছে ৯টি, শ্বশুরের ভাগে পড়েছে ৮টি। এতে জামাই মনোক্ষুণ্ন হলেও খুশি শ্বশুর।

উচ্চ আদালত বলেছেন, ভবিষ্যতে যেনো এ নিয়ে আর কোনো বিরোধ না হয়। সৌদি আরব যাওয়ার আগে শ্বশুর নূর মোহাম্মদকে ৮ মহিষ ও ৫টি গরু পালতে দিয়ে যান জামাই আব্দুল ওয়াদুদ। ৮টি মহিষ বেড়ে দাঁড়ায় ২০টিতে আর গরু ২টি বেড়ে হয় ৭টি। ১০ বছর পর দেশে ফিরে সবকটি গরু-মহিষের মালিকানা দাবি করেন জামাই। দিতে অস্বিকৃতি জানান শ্বশুর।

এ নিয়ে শুরু হয় দ্বন্দ্ব। উপক্রম হয় সংসার ভাঙার। বিষয়টি প্রথমে স্থানীয় প্রশাসন ও আদালতে মীমাংসার চেষ্টা করা হয়। সিদ্ধান্ত পক্ষে যায় জামাইয়ের। নাছোড়বান্দা শ্বশুর মামলা করেন উচ্চ আদালতে। জামাই-শ্বশুরের এমন অদ্ভূত বিরোধ মীমাংসার দায়িত্ব পড়ে সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইডের ওপর। দুপক্ষের বক্তব্য শুনে বণ্টন করা হয় মহিষগুলো। ১৭টি মহিষের মধ্যে ৯টি পান জামাই, শ্বশুরের ভাগে পড়ে ৮টি। উচ্চ আদালতও একমত হন এই সিদ্ধান্তে।

জামাই পক্ষের আইনজীবী আকতার রসুল মুরাদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার উভয়পক্ষকে নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইডে বসা হয়। সাড়ে ৩ ঘণ্টার আলোচনার পর সিদ্ধান্ত হয়, জামাই ৯টি মহিষ পাবেন এবং শ্বশুর পাবেন ৮টি। এ বিষয়ে লিখিত আকারে স্বাক্ষর হয়। সেটা কোর্টে উপস্থাপন করলে কোর্ট আমলে নিয়ে রামগতির ওসিকে নির্দেশ দেবেন, গরু-মহিষ যেন বুঝিয়ে দেয়া হয়। এছাড়া পরবর্তীকালে যেন তাদের মধ্যে পারিবারিকভাবে এ নিয়ে কোনো বিরোধ না হয়।’

মামলার বিবরণে জানা যায়, চাকরির উদ্দেশ্যে সৌদি আরবে যান অদুদ। তার স্ত্রী ও চার সন্তান রয়েছে। বিদেশ যাওয়ার আগে স্বামীর কেনা ৮টি মহিষ ও ৫টি গরু লালন-পালনের জন্য কহিনুর বেগম তার বাবা নূর মোহাম্মদকে দেন। ৫টি গরু ও ৮টি মহিষ বাছুরসহ ৭টি গরু ও ২০টি মহিষে পরিণত হয়। ১১ বছর চাকরির পর ২০১৯ সালে দেশে ফেরেন অদুদ। দেশে আসার পর গবাদি পশুগুলো ফেরত চাইলে নূর মোহাম্মদ ফেরত না দেওয়ার হুমকি দেন। এরপর সেগুলো উদ্ধারের জন্য লক্ষ্মীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পিটিশন মামলা করেন তিনি। মামলাটি তদন্ত করে গত বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি প্রতিবেদন দেয় রামগতি থানা পুলিশ। একইসঙ্গে গবাদি পশুগুলোও উদ্ধার করে জিম্মায় নেয় পুলিশ। ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গরু ও মহিষ নিজের দাবি করে আদালতে আবেদন করেন নূর মোহাম্মদ। এরপর প্রকৃত মালিকানা যাচাইয়ের জন্য আদালতের আদেশে চর কলাকোপা কারামতিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ এ বিষয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। সেই প্রতিবেদনের ভিত্তিতে গত বছরের পহেলা ডিসেম্বর গবাদি পশুগুলো জামাই অদুদের জিম্মায় দিতে আদেশ দেয় আদালত। এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দায়রা আদালতে আবেদন করেন শ্বশুর। লক্ষ্মীপুরের দায়রা জজ মো. রহিবুল ইসলাম ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের আদেশ বহাল রাখেন।

জামাই আব্দুল ওয়াদুদ বলেন, ‘হাইকোর্ট আমার পক্ষে রায় দিয়েছে। এখন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, থানায় এবং চেয়ারম্যান মিলে মহিষগুলো ভাগ করে দেবে।’

লক্ষ্মীপুর সংবাদ আরও সংবাদ

রামগতিতে প্রধানমন্ত্রীর ১০ টি উদ্ভাবনী উদ্যোগ নিয়ে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

লক্ষ্মীপুর লেখক পাঠক ফোরামের ১৭ তরুণ লেখককে সংবর্ধনা

লক্ষ্মীপুরে প্রবীনদের মিলন মেলা ও সংবর্ধনা সভা

লক্ষ্মীপুরে নিরাপদ খাদ্য ও উচ্চমূল্য ফসল উৎপাদনে ডিপ্লোমা কৃষিবিদদের সেমিনার

লক্ষ্মীপুরে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিত

লক্ষ্মীপুরে গাছ পড়ে শিশুর মৃত্যু, আহত ৪

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ে অনলাইন নিউজপোর্টাল প্রকাশনার নিবন্ধনের জন্য আবেদনকৃত, তারিখ: 9/12/2015  
 All Rights Reserved : Lakshmipur24 ©2012-2022
Chief Mentor: Rafiqul Islam Montu, Editor & Publisher: Sana Ullah Sanu.
Muktijudda Market (3rd Floor), ChakBazar, Lakshmipur, Bangladesh.
Ph:+8801794 822222, WhatsApp , email: news@lakshmipur24.com