শিক্ষাবিদ এএনএম আবদুল মান্নান: জেলাবাসী একজন অভিভাবককে হারালো

01অধ্যাপক আজিজুর রহমান আযম: লক্ষ্মীপুর জেলার বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, সমাজ সংস্কারক ইংরেজী বিষয়ের একজন বিদগ্ধ পন্ডিত ও একজন দক্ষ সংগঠক প্রফেসর অধ্যক্ষ এএনএম আবদুল মান্নান এখন স্মৃতি। এ বছরের ১০ সেপ্টেম্বর রাত ১১টায় ঢাকাস্থ স্কয়ার হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্না——রাজেউন)। তাঁর মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে টিআইবি বাংলাদেশের নির্বাহী প্রধান ড. ইফতেখারুজ্জামান টিআইবি’র নিজস্ব ওয়েবসাইটে বলেন লক্ষ্মীপুরবাসী দুর্নীতি বিরোধী একজন সক্রিয় কর্মীকে হারালো। তার মৃত্যুতে লক্ষ্মীপুর জেলার সর্বত্র শোকের কালো ছায়া নেমে আসে।

১৩ সেপ্টেম্বর লক্ষ্মীপুরস্থ সোনা মিঞা ঈদগাঁও ময়দানে তাঁর নামাজে জানাযা শেষে তাকে তার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। তিনি স্ত্রী, তিন ছেলে, ১ মেয়ে ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মানুষ মাত্রই মরণশীল। এটা সৃষ্টিকর্তার অমোঘ বাণী। কিন্তু কিছু কিছু মানুষের মৃত্যু মানুষের মনোজগতে দারুণভাবে নাড়া দেয়। মানুষকে শোকের কালো সাগরে নিমজ্জিত করে। প্রফেসর মরহুম মান্নান ছিলেন সেই রকম একজন বিশাল মাপের ব্যক্তিত্ব।

প্রফেসর এএনএম আবদুল মান্নান ব্যক্তি জীবনে অত্যন্ত সৎ, ধার্মিক, বিনয়ী, নীতিবান, ধৈর্য্যশীল, সংযমী, প্রেরণা দানকারী, সামাজিক, শিক্ষানুরাগী, পরিশ্রমী ও অসাধারণ ব্যক্তিত্বের অধিকারী ছিলেন। ইংরেজী ভাষা সাহিত্যের পন্ডিত ছাড়াও তিনি আরবী, উর্দ্দু, হিন্দী ভাষায় তার অনেক দখল ছিল। তিনি বহু মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিম খানার সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। মানব কল্যানে এক নিবেদিত প্রাণ এবং রসিক মানুষ ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে লক্ষ্মীপুর বাসী এক সত্যিকারে অভিভাবককে হারালো। যা কোন দিন পূরন হওয়ার নয়। তাঁর মৃত্যুতে লক্ষ্মীপুরের উন্নয়নে অপরিসীম ক্ষতি হয়ে গেল।

এ মনিষী ১৯৪৭ সালের ১৪ ডিসেম্বর লক্ষ্মীপুর পৌরসভার উত্তর আবিরনগরে এক সম্ভান্ত্র মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। তার পিতা মরহুম আবদুল মতলব তিনি ছিলেন, অবসর প্রাপ্ত থানা কৃষি অফিসার। প্রফেসর মান্নান ১৯৬৩ সালে দৌলত হাইস্কুল, ভোলা থেকে ১ম বিভাগে এস. এস.সি, চৌমুহনী সরকারি এস. এ কলেজ থেকে ১৯৬৫ সালে ১ম বিভাগে এইচ.এস.সি পাশ করেন। তিনি তৎকাকালিন মেধা তালিকায় এইচএসসিতে কুমিল্লা বোর্ডে ১১তম স্থান দখল করেন তিনি। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজী সাহিত্য সম্মানসহ এমএ ডিগ্রী লাভ করেন।

১৯৬৯ সালে টাঙ্গাইল জেলার বেসরকারী গোপালপুর কলেজে ইংরেজী বিষয়ের প্রভাষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৭০ সালে মার্চ-জুলাই লক্ষ্মীপুর কলেজে ইংরেজী প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। ১৯৭০ সালে চট্টগ্রাম কলেজে যোগ দিয়ে ১৯৮০ সালের ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত অধ্যাপনা করেন। ১৯৮০ সাল থেকে আগস্ট ১৯৮৫ ইং সালের মার্চ পর্যন্ত তিনি লিবিয়ার অল খোমসে শিক্ষকতা করেন। এরপর ১৯৮৫ সালে নোয়াখালী সরকারী মহিলা কলেজের প্রভাষক পদে যোগদিয়ে বিভিন্ন পদ পেরিয়ে ১৯৯২ সালে উক্ত কলেজের উপাধ্যক্ষ হন। এছাড়াও তিনি সিলেট সরকারী মহিলা কলেজ, কুমিল্লা দেবিধা এসএ সরকারী কলেজ, রামগঞ্জ সরকারী কলেজ হয়ে ২০০৪ সালের ১২ ডিসেম্বর লক্ষ্মীপুর সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে অবসর গ্রহণ করেন। তিনি Asian University of Bangladesh এ ইংরেজী শিক্ষক পদে চাকুরী করেন। ২০০৫ সালে স-স্ত্রীক পবিত্র হজ্ব পালন করেন।

তিনি বেশ কয়েকটি সংস্থার আজীবন সদস্য ছিলেন। উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠান গুলো হচ্ছে,বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, লক্ষ্মীপুর জেলা শাখা, লক্ষ্মীপুর ফাউন্ডেশন, আঞ্জুমান এ-মফিদুল ইসলাম, লক্ষ্মীপুর শাখা, আল-কুরআন অনুশীলন পরিষদ, লক্ষ্মীপুর, আল-কুরআন রিচার্স একাডেমী এর উপদেষ্টা। এছাড়া তিনি লক্ষ্মীপুর কমার্স কলেজ,সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), টিআইবি, লক্ষ্মীপুর, লক্ষ্মীপুর জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমির সভাপতি ও সহসভাপতি পদে দায়িত্বে ছিলেন।

স্বীকৃতি প্রাপ্তি: ক) ২০০০ সালে নোয়াখালী জেলার শ্রেষ্ঠ কলেজ অধ্যক্ষ খ) ২০০৪ সনে লক্ষ্মীপুর জেলার শ্রেষ্ঠ কলেজ অধ্যক্ষ গ) জাতীয় শিক্ষক দিবস ২০০৫ এ লক্ষ্মীপুর জেলার কৃতি কলেজ শিক্ষক হিসাবে সংবর্ধিত হন।

তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন: দুদক এর বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ বদিউজ্জামান, দৈনিক নয়া দিগন্তের প্রকাশক আলহাজ্ব সামছুল হুদা এফসিএ, লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম শাহজাহান কামাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির বর্তমান সেক্রেটারী প্রফেসর ড. মাকসুদ কামাল, লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের প্রশাসক, প্রাক্তন অতিরিক্ত সচিব মোঃ শামছুল ইসলাম, লক্ষ্মীপুর-০২ (রায়পুর-লক্ষ্মীপুর) আসনের সাংসদ জনাব মোঃ নোমান।
লক্ষ্মীপুর-০১ রামগঞ্জ আসনের সাংসদ লায়ন এমএ আউয়াল, লক্ষ্মীপুর-০৪ (রামগতি-কমলনগর) আসনের সাংসদ আবদুল্যাহ আল-মামুন, লক্ষ্মীপুর-০৩ আসনের সাবেক সাংসদ শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, লক্ষ্মীপুরের পৌর মেয়র এমএ তাহের, ১৯৭২ সালে লক্ষ্মীপুর সরকারী কলেজ ছাত্র সংসদের জিএস সালেহ উদ্দিন ভূঁইয়া, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাহাব উদ্দিন সাবু, রাজনীতিবিদ আবুল বারাকাত দুলাল, লক্ষ্মীপুর সদর আসনের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আওম সফিক উল্যা, লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান হাছানুজ্জামান চৌধুরী মিন্টু, বায়োফার্মার এমডি ডাঃ আনেয়ারুল আজিম, লক্ষ্মীপুর প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক এমএ মালেক, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট সামছুল আলম, লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এম. আলাউদ্দিন, লক্ষ্মীপুর সরকারী কলেজের বর্তমান অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ সোলায়মান, সাবেক অধ্যক্ষ খলিলুর রহমান চৌধুরী, সাবেক অধ্যক্ষ ও সনাক সভাপতি প্রফেসর মাহবুব মোঃ আলী, চৌমুহনী সরকারী এসএ কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ জেড এম ফারুকী, অধ্যক্ষ প্রফেসর রফিকুল আহছান, লক্ষ্মীপুর সরকারী মহিলা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ মনছুরুল হক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও লক্ষ্মীপুর সরকারী কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মাইন উদ্দিন পাঠান, এডভোকেট বেলায়েত হোসেন বেলাল, লক্ষ্মীপুর সাহিত্য সংসদের সাধারণ সম্পাদক, সাংবাদিক ও বিশিষ্ট কবি গাজী গিয়াস উদ্দিন, লক্ষ্মীপুর সাহিত্য সংসদের সভাপতি ডাঃ সালাহ উদ্দিন শরীফ, লেখক ডাঃ এমএএইচ আলমগীর, কবি মোস্তফা আল-মামুন, কবি মুরাদ আল হাসান চৌধুরী, বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদের জেলা সভাপতি অধ্যাপক আজিজুর রহমান আযম, শিক্ষক কর্মচারী ঐক্যজোটের লক্ষ্মীপুর জেলা সভাপতি অধ্যাপক শাহ নেওয়াজ কবির, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব জাকির হোসেন ভূঁইয়া আজাদ, আদর্শ শিক্ষক পরিষদের জেলা সভাপতি মাস্টার হোসাইন আহম্মদ ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আহম মোস্তাকুর রহমান, লক্ষ্মীপুর ইমাম সমিতির সভাপতি অধ্যক্ষ হারুন আল-মাদানী, বিএম এর লক্ষ্মীপুর জেলা সভাপতি ডাঃ আশফাকুর রহমান মামুন, বাকশিস লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার সভাপতি অধ্যক্ষ হেলাল উদ্দিন আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সাহাদাত হোসেন রিয়াজ, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের জেলা আহবায়ক অধ্যাপক মাহবুবুর রশিদ চৌধুরী, অধ্যক্ষ সেলিম উদ্দিন নিজামী, বিশিষ্ট শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ নুরুল ইসলাম, বিশিষ্ট ডেন্টাল সার্জন সফিকুল ইসলাম, বিশিষ্ট ডেন্টাল সার্জন মোঃ নিজাম উদ্দিন, নছির আহাম্মদ ভূঁইয়া স্মৃতি সংসদের সভাপতি এডভোকেট্ আবুল বাসার, লক্ষ্মীপুর আইন কলেজের অধ্যক্ষ এডভোকেট আবদুর নূর, বশিকপুর স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল হুদা বকুল, লক্ষ্মীপুর কর্মাস কলেজের অধ্যক্ষ জিএম জাকারিয়া খাঁন, দালাল বাজার ডিগ্রী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শাহ আলম, রায়পুর রস্তুম আলী ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মামুনুর রশিদ, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট নূর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন, বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম সালাহ উদ্দিন টিপু, লক্ষ্মীপুর সরকারী মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মজিব উল্যাহ, নোয়াখালী সরকারী মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ হারুনুর রশিদ সহ প্রমূখ।

এই বণাঢ্য ব্যক্তিত্বের জীবনী এই স্বল্প পরিসরে লিখতে গিয়ে অনেক মুল্যবান তথ্য ও উপাত্ত্ব বাদ যেতে পারে তার জন্য আমি আন্ত্রিক ভাবে দুঃখিত। তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে ও শোকার্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

লেখক: সভাপতি,বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদ,লক্ষ্মীপুর জেলা
মুঠোফোন: ০১৮২৪ ৪৬৮৫২৮