লক্ষ্মীপুর-নোয়াখালী-ফেনী জেলার ক্ষুদ্র সেচ উন্নয়নে ১৪৩ কোটি টাকার প্রকল্প একনেকে পাশ

নিজস্ব প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী এবং ফেনী জেলার ক্ষুদ্র সেচ উন্নয়ন লক্ষে ১শ ৪৩ কোটি টাকার একটি প্রকল্প একনেকে পাশ হয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) এনইসি সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় আরো ১৪টি প্রকল্পের সাথে এ প্রকল্প চূড়ান্ত অনুমোদন পায়।

এ সময় নোয়াখালীর হাতিয়া থানাধীন চরঈশ্বর ইউনিয়নের ভাষান চরে মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে ২ হাজার ৩১২ কোটি টাকার প্রকল্প ও পাস হয়। প্রকল্পের অধীন নোয়াখালীর হাতিয়া থানাধীন চরঈশ্বর ইউনিয়নের ভাষান চরে মিয়ানমার থেকে আসা ১ লাখ রোহিঙ্গাদের আবাসন এবং দ্বীপের নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণে একটি প্রকল্প।

লক্ষ্মীপুর জেলা কৃষি সম্প্রারণ কার্যালয়ের সূত্র জানায় লক্ষ্মীপুরের পাঁচ উপজেলায় প্রতি বছর ইরি-বরো মৌসুমে গড়ে ২৭ হাজার ৩শ ৫৩ হেক্টর জমিতে ইরি-বরোর চাষ হয়। যেখানে ক্ষুদ্র সেচের মাধ্যমে ইরি-বরো চাষ চলে। জানা যায়, জেলার রামগতি উপজেলায় কোন ধরনের ইরি-বরো ধানের আবাদ হয় না। কমলনগরের উত্তর চর লরেঞ্চ, উত্তর মার্টিন এলাকায় সামান্য জমিতে এবং লক্ষ্মীপুর সদর ও রায়পুর উপজেলার বেশ কিছু এলাকায় সেচের মাধ্যমে ইরি-বরো চাষ হয়।