রায়পুরে প্রধান শিক্ষকের নামে গাছে ব্যানার

রায়পুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে চর আবাবিল এসসি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিজয় কীত্তনীয়ার বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ দিয়ে একটি ব্যানার টানানো হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় অজ্ঞাত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের নামে প্রধান শিক্ষকের নানা অনিয়ম ও দূর্নীতির কয়েকটি চিত্র তুলে সংবেলিত লেখা ব্যানার স্কুল এলাকায় গাছে গাছে ঝুলিয়ে অপসারন করার দাবি জানানো হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসি জানান, ঐতিহ্যবাহী এ বিদ্যালয়টিতে ১২ জন শিক্ষক-কর্মচারী কর্মরত ও সহস্রাধিক শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত রয়েছে। অভিযোগ রয়েছে প্রধান শিক্ষক বিজয় কিত্তনীয়া বিদ্যালয়ে নিয়োগের পর থেকে শিক্ষকদের সাথে দ্বন্দ্বসহ শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বানিজ্য ও অর্থ আত্মসাৎ করছেন। বিদ্যালয়ের সামনে মসজিদের জন্য দ্বিতল ভবন নির্মান, মসজিদের উন্নয়নে সরকারি যায়গায় (পাউবো) ৪টি দোকান নির্মান, অযু করার জন্য সরকারি খালে ঘাটলা নির্মান ও শৌচাগার নির্মানে ভূমি কর্মকর্তাদের দিয়ে বাধা দেয়ায় তা উন্নয়ন বন্ধ রয়েছে।

জেলা পরিষদের সদস্য যুবলীগ নেতা মঞ্জুর হোসেন সুমন ও ক্যাম্পেরহাট জামে মসজিদের সভাপতি বাবুল বলেন, প্রধান শিক্ষক বিজয় কীত্তনীয়ার পরোক্ষ সহযোগিতায় মসজিদ সংস্লিষ্ট সকল উন্নয়ন কাজ বন্ধ রয়েছে। প্রধান শিক্ষক বিজয় কীত্তনীয়া বলেন, আমার নিয়োগ নিয়ে এলাকার কিছু কুচক্রিমহল মিথ্যা অপপ্রচার করেছিল এবং এখনো করছে। নানা অনিয়ম ও দূর্নীতি নিয়ে ওই চক্রটি অজ্ঞাত ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকদের নামে সংবেলিত লেখা ব্যানার বানিয়ে স্কুল এলাকায় গাছে গাছে ঝুলিয়ে দিয়েছে। পরিচালনা কমিটির মিটিংয়ে বিচার দাবি জানানো হবে।

বিদ্যালয়ের এডহক কমিটির আহবায়ক ও জেলা আ’লীগের নেতা এড.আব্দুল মান্নান মুন্সি বলেন, আমি দায়িত্ব গ্রহন করার পর বিদ্যালয়ের উন্নয়ন সহ শিক্ষক নিয়োগ দিয়েছি। প্রধান শিক্ষকের সাথে এলাকার কয়েকজনের সাথে দ্বন্দ্ব থাকতেই পারে। জেলা পরিষদের সদস্য যুবলীগ নেতা মঞ্জুর হোসেন সুমন বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি হতে না পারায় মনে ক্ষোভ থাকতেই পারে। তারপরেও বিদ্যালয় ও মসজিদ কমিটির সংশ্লিষ্টদের নিয়ে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করব।