প্রেমের ঘটনায় লক্ষ্মীপুরে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রেম সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৫ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী আহত হন। সোমবার (৮ জানুয়ারি) সকাল ১১টার দিকে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম রকি ও সাধারণ সম্পাদক মহসিন কবির সাগরের অনুসারীদের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। পরে সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মাইন উদ্দিন পাঠান এগিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে সবাই পালিয়ে যায়।
আহতরা হলেন, তারেক (১৭), ইমন (১৭) ও জুবায়েরসহ (১৭) ৫ জন। তারা সবাই সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র। জানা গেছে, রোববার (৭ জানুয়ারি) প্রেম সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে কলেজ ক্যাম্পাস এলাকায় ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে কলেজ সভাপতি এসে ঘটনাটি মীমাংসা করে দেয়। এর জের ধরে সোমবার সকালে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে ফের দু’গ্রুপের মধ্যে কলেজের মূল ফটকে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ছাত্রলীগের ৫ নেতাকর্মী আহত হয়। আহতদের মধ্যে তারেক ও ইমনের মাথায় জখম রয়েছে এবং জুবায়েরের হাতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাদের ৩জনকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকি দুইজন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।

কলেজ শাখা ছাত্রলীগের মহসিন কবির সাগর বলেন, ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে কলেজ ছাত্র ও বহিরাগতদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল এসে কাউকে দেখতে পায়নি। তবে এ ঘটনায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মী জড়িত নয় বলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।
লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মাইন উদ্দিন পাঠান বলেন, কলেজের মূল ফটকে মারামারির ঘটনা দেখতে পেয়ে আমিসহ অন্যান্য শিক্ষক ছুটে যায়।

আমাদের দেখতে পেয়ে সবাই পালিয়ে যায়। তবে কি কারণে এ ঘটনা ঘটেছে তা আমার জানা নেই। এ ব্যাপারে একটি তদন্ত টিম গঠন করা হবে।
লক্ষ্মীপুর শহর পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আবু নাছের বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তবে কাউকে পাওয়া যায়নি। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ সতর্ক রয়েছে