লক্ষ্মীপুরে মেঘনায় তিন জেলে অপহরণ, মুক্তিপণ দাবি

লক্ষ্মীপুরের রামগতি মেঘনা নদীতে ইঞ্জিনচালিত তিনটি মাছ ধরার নৌকায় জলদস্যুরা হানা দিয়েছে। এ সময় নৌকাসহ তিন জেলেকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে মুক্তিপণ দাবি করেছে দস্যুরা। রবিবার (৩ জুন) দুপুরে অপহৃত জেলেদের স্বজন ও মাছের আড়ৎদাররা সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে ভোরে রামগতির চর আবদুল্লাহ এলাকার নদীতে ডাকাতি ও জেলেদের অপহরণের ঘটনা ঘটে।

অপহৃতরা হলেন কমলনগর উপজেলার পাটারির হাটেরর নুরনবী মাঝির ছেলে জুয়েল, নোয়াখালীর আন্ডারচরের আলমগীর হোসেনের ছেলে হাফিজ ও রামগতির আলেকজান্ডার শ্যামল গ্রামের শাহেদ আলীর ছেলে জাহের মাঝি।

জাহের মাঝির আড়ৎদার রিপন বদ্দার, নুরনবী মাঝির আড়ৎদার এরশাদ পাটওয়ারী জানান, ঘটনার সময় মাছ ধরে ঘাটে ফেরার সময় ১৪-১৫ জনের একদল জলদস্যু জেলের তিনটি নৌকায় হানা দেয়। এ সময় অস্ত্রের মুখে তাদের জিম্মি করে তিন জেলেকে অপহরণ করে লুটে নেয় টাকা, মোবাইল, সৌরবিদ্যুৎ, জাল, মাছসহ নুরনবী মাঝির ইঞ্জিনচালিত নৌকা।

পরে জেলেদের ব্যবহৃত মোবাইল থেকে পরিবারের লোকজনের কাছে ৬০ হাজার টাকা মুক্তিপন দাবি করে দস্যুরা। অপহৃতদের পরিবারের লোকজন পুলিশকে বিষয়টি জানিয়েছেন।

রামগতি থানার ওসি আরিছুল হক বলেন, উপকূলীয় চরগজারিয়া পুলিশ ফাঁড়িতে খোঁজ-খবর নিয়েছি। এ ব্যাপারে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি।

কমলনগর থানার ওসি ইকবাল হোসেন বলেন, ‘ঘটনাটি শুনেছি। কোনো জেলে অপহৃত হয়ে থাকলে তাদের উদ্ধারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে।’