মেঘনায় জাহাজে ডাকাতি, ৭ শ্রমিক নিখোঁজ,শ্রমিক ইউনিয়নের ধর্মঘট

নিজস্ব প্রতিবেদক: রামগতি মেঘনা নদীতে কর্ণফুলী নামের একটি লাইটারেজ জাহাজে ডাকাতি হয়েছে। ঘটনার পর থেকে ওই জাহাজের ৭ শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছেন। পুলিশ হেফাজতে রয়েছে মাল বোঝাই জাহাজসহ আরও তিন

শ্রমিক। এ ঘটনার জের ধরে লাইটারেজ জাহাজ ও নৌযান শ্রমিক ইউনিয়ন সারা দেশে অনিদিষ্টকালের ধর্মঘট ডাকেছেন।

শুক্রবার গভীর রাতে মেঘনা নদীর চর আবদুল্লাহ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। শনিবার ভোররাতে তিনজন শ্রমিক ১৪ হাজার ৪’শ বস্তা পন্যসহ কর্ণফুলী নামের ওই জাহাজটি কমলনগর থানা পুলিশ হেফাজতে নেয়।

পুলিশেল হেফাজতে থাকা শ্রমিকরা হলেন নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার তুফানিয়া গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে মো. পারভেজ (২৭), ভোলার শ্যামপুর গ্রামের মৃত আবদুল আজিজের ছেলে মাহবুব হোসেন (৫০) ও ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা উপজেলার বাসিন্দা শুক্কুর খানের ছেলে জাহিদুল ইসলাম। তবে নিখোঁজ শ্রমিকদের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুামায়ুন কবির বলেন, মাল বোঝাই জাহাজটি চট্টগ্রাম থেকে সিরাজগঞ্জ যাচ্ছিল। গভীর রাতে রামগতির মেঘনা নদীর চর আবদুল্লাহ এলাকায় পৌঁছলে ঘটনাটি ঘটে। জাহাজটি ¯্রােতের অনুকূলে থাকায় ভাসতে-ভাসতে কমলনগরের মেঘনা নদীর বাতির ঘাট এলাকায় এসে আটকা পড়ে। এসময় জাহাজটির একটি ক্যাবিনের বন্দিদশা থেকে দুই জন শ্রমিক এবং নদী থেকে জেলেরা অপর এক শ্রমিককে উদ্ধার করে। তিনি আরও বলেন, বিষয়টি ডাকাতি নাকি জাহাজের শ্রমিকদের মধ্যে অভ্যন্তরিন বিরোধের জের ধরে হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ডাকাতের কবলে পড়ে লাইটারেজ জাহাজের নিখোঁজ শ্রমিকদের সন্ধানের দাবিতে সারাদেশে অনিদিষ্টকালের ধর্মঘট ডেকেছে বাংলাদেশ লাইটারেজ জাহাজ ও নৌযান শ্রমিক ইউনিয়ন। শনিবার সকাল থেকে দেশের নদী ও সমুদ্র বন্দরে সব ধরনের পন্য খালাস ও পরিবহন থেকে বিরত আছে এই দুই সংগঠনের হাজার হাজার শ্রমিক।