জাহাজ চালক নুর নেওয়াজের লাশ উদ্ধার ,নিখোঁজ-২

নিজস্ব প্রতিনিধি: রামগতির মেঘনা নদী থেকে কর্ণফুলী-৫ জাহাজের নিখোঁজ চালক নুর নেওয়াজের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার রাতে আলেকজান্ডার মাছঘাট এলাকার মেঘনা নদী থেকে তার

লাশ উদ্ধার করা হয়। কমলনগর থানা সূত্রে জানা যায়, নদীতে লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। রাতে রামগতি থানা পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে কমলনগর থানায় নিয়ে আসে। পরে জাহাজ মালিক আবদুস সালাম চালক নুর নেওয়াজের লাশ সনাক্ত করেন।

সোমবার ভোর রাতে লাশ লক্ষ্মীপুর সদর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।
কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (৭ নভেম্বর) রাতে লক্ষ্মীপুরের রামগতির উপজেলার মেঘনা নদীর চর আবদুল্লাহ এলাকায় কর্ণফুলী-৫ নামের জাহাজ থেকে চালক নুর নেওয়াজসহ ও জাহাজের ৭ জন নিখোঁজ হন। পরের দিন সকালে

কমলগরের বাতির ঘাট এলাকা থেকে হাজিরহাট তদন্ত কেন্দের এসআই মোঃ ফরিদের নেতৃত্বে পুলিশ সার ভর্তি জাহাজটি তাদের হেফজতে নেয়।

এ সময় জাহাজের একটি কেবিন থেকে তালাবন্দি অবস্থায় দুই জনকে উদ্ধার করেন। একই সময় স্থানীয় জেলেরা নদী থেকে আরও একজনকে উদ্ধার করে।

উদ্ধার হওয়া মাহবুব ও জাহিদ জানান, চট্রগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা সার বোঝাই জাহাজটি শুক্রবার রাতে রামগতির চর আবদুল্লাহ পৌঁছলে ওই জাহাজের লস্কর টিটু ও শামীম চালকের ওপর হামলা চালায়। আমাদের বন্দি করে রাখে। এসময় কেবিন থেকে আমার শোর চিৎকার শুনতে পাই।

উদ্ধার হওয়া মাহবুব ও জাহিদের ধারনা চালকসহ তিনজনকে হত্যা করে নদীতে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায় অন্যরা।
এ ঘটনায় শনিবার (৮নভেম্বর) রাতে জাহাজের মালিক আবদুস সালাম বাদী হয়ে ওই জাহাজে কর্মরত চারজনসহ পাঁচ জনকে আসামী করে কমলনগর থানায় মামলা দায়ের করেন।