রামগঞ্জ থেকে বাগেরহাটের কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধার

125_38863নিজস্ব প্রতিনিধি:
রামগঞ্জ থেকে বাগেরহাটের কলেজ ছাত্রী হুমায়েরা আক্তার ভাবলীকে উদ্ধার করেছে রামগঞ্জ থানা পুলিশ। উদ্ধারকৃত ছাত্রী ভাবলী সেনা কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল করিমের মেয়ে। তার বাবা বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ঢাকাস্থ রাজেন্দ্রপুর ক্যান্টেরম্যান্টের সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার হিসেবে কর্মরত। সোমবার সন্ধার দিকে রামগঞ্জ উপজেলার চন্ডিপুরের উত্তর হাজীপুর আঃ করিম হাজী বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।
স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, উপজেলার ৫নং চন্ডিপুরের ফকিরপুর পাটোয়ারী বাড়ির ফারুকের ছেলে কাউছার হাবিব বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ফোনে প্রেমিকা ভাবলীকে গত ২৭ অক্টোবর বাগেরহাট থেকে ঢাকায় গাবতলী বাসষ্ট্যান্ডে নিয়ে আসে। ওই দিনই ফরিদগঞ্জ উপজেলার সাহেবগঞ্জ ও পরে কাউছার হাবিবের খালার বাড়ির রামগঞ্জ উপজেলার চন্ডিপুরের উত্তর হাজীপুর আঃ করিম হাজী বাড়িতে নিয়ে আসে। কিন্তু প্রেমিক হাবিব ৬ দিন যাবত বিভিন্ন তালবাহানা দেখিয়ে বিয়ে না করে রবিবার দিবাগত রাতে পালিয়ে যায়। পরের দিন সোমবার বিকেলে ঘটনাটি জানতে পেরে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে সন্ধায় রামগঞ্জ থানা পুলিশের এস আই মোজাম্মেল হোসেন ঘটনাস্থল গিয়ে কলেজ ছাত্রী হুমায়েরা আক্তার ভাবলীকে উদ্ধার করে রামগঞ্জ থানায় নিয়ে আসে।
ভাবলী বাঘেরহাট সরকারী পিসি কলেজের দ্বাদশ শেনীর মানবিক বিভাগের ছাত্রী। রোল নং-৭৬৭। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত প্রেমিক মোঃ কাউছার হামিদ হাবিব পলাতক রয়েছে। বর্তমানে কলেজছাত্রী ভাবলী রামগঞ্জ থানা হেফজতে রয়েছে।
রামগঞ্জ থানার এসআই মোজাম্মেল হোসেন জানান, বাগেরহাট সদর থানার অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা কলেজছাত্রী ভাবলীকে চণ্ডিপুরস্থ একটি বাসা থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। প্রতারক প্রেমিক কাউছার হাবিবকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
রামগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ লোকমান লোকমান হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে মঙ্গলবার সাংবাদিকদের জানান, ভাবলী এখন পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। তার অভিভাবকের সাথে যোগাযোগ করা হচ্ছে। তারা আসলে তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।