শতবর্ষী রায়পুর এলএম স্কুল জাতীয়করণের জন্য সংসদে বলবো: সংর্বধনা অনুষ্ঠানে এমপি নোমান

নিজস্ব প্রতিনিধি, রায়পুর: লক্ষ্মীপুর জেলার শতবর্ষী ঐতিহ্যবাহী মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেন জাতীয়করন না হয় কিছু কুচক্রী মহল উঠে পড়ে লেগেছে। তার সুনাম ধরে রাখাতে হবে। এ জন্য সকলের সহযোগীতা প্রয়োজন। আগামী সংসদ অধিবেশনে প্রতিষ্ঠানটি সরকারিকরণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর সহযোগীতা চাওয়া হবে। এ প্রতিষ্ঠানের মেধাবী শিক্ষার্থীরা দেশের নানা সেক্টরে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। বৃহস্পতিবার  ( ১২ এপ্রিল) বিকেলে লক্ষ্মীপুর রায়পুর এলএম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতা পুরষ্কার বিতরণ ও অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে লক্ষ্মীপুর-২ রায়পুরের সাংসদ ও জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মোহাম্মদ নোমান এ বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠান শেষে বিদায়ী প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ ও সহকারী শিক্ষক আবুল কাশেম ভূঁইয়াকে ক্রেষ্ট দিয়ে সংবর্ধনা এবং ১৫টি ইভেন্টে অংশগ্রহনকারী বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরুষ্কার বিতরণ করা হয়েছে।

দিনব্যাপী অনাড়ম্বর এ অনুষ্ঠানে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মো: শাহজাহানের সভাপতিত্বে ও প্রধান শিক্ষক মো:মাহাবুবুর রহমান লিটনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সাংসদ মোহাম্মদ নোমান, ইউএনও শিল্পী রানী রায়, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: কামাল হোসেন, উপজেলা আলীগের সভাপতি অধ্যক্ষ মামুনুর রশিদ, সাবেক পৌর মেয়র রফিকুল হায়দার বাবুল পাঠান, পৌর আ’লীগের আহবায়ক কাজী জামশেদ কবির বাক্কি বিল্লাহ, জাতীয় পার্টির উপজেলা সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাহার, পৌর সভাপতি ইলিয়াস কবির মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শক মো: মাঈনুদ্দিন, এড. ইউসুফ জালাল কিসমত, সাংবাদিক তাবারক হোসেন আজাদ , মুকুল পাটওয়ারী ও নজরুল ইসলাম প্রমুখ।