রায়পুরে কলেজ ছাত্রী আত্মসমর্পনের পর কারাগারে প্রেরণ

রায়পুর প্রতিনিধি: রায়পুরে পিতার দায়ের করা অপহরণ মামলায় আদালতে আত্মসমর্পনের পর সেই কলেজ ছাত্রী মেধা সাহা লোপাকে (১৯) কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। নিখোঁজের ৯দিন পর সে সোমবার লক্ষ্মীপুর চীফ

জুডিশিয়ার ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উপস্থিত হয়। ওই সময় সে আদালতকে অপহৃত নয়, প্রেমিকের হাত ধরে ঘরে ছেড়েছে বলে জানালে মঙ্গলবার শুনানীর দিন ধার্য করে আদালত তাকে কারাগারে পাঠিয়েছে।

পুলিশ জানায়, মেধা সাহা লোপার পিতা রায়পুর শহরের ব্যবসায়ী লিটন সাহা বাদি হয়ে দোলন কুট্টিসহ ৬জনকে আসামী করে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করে। ওই ঘটনায় পুলিশ জীবন কুট্টি নামের একজনকে গ্রেফতার করে। ১৯ অক্টোবর দুপুরে রায়পুর সরকারি কলেজ থেকে বাসায় ফেরার পথে লোপাকে অপহরণ করে অভিযুক্তরা অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায় বলে এজাহারে উল্লেখ রয়েছে।

কলেজ ছাত্রী লোপা আদালতের বারান্দায় সাংবাদিকদের বলেন, আমি স্ব-ইচ্ছায় ঘর ছেড়েছি। প্রেমিক দোলনের সঙ্গে আমার বিয়ে হয়েছে। কেউ আমাকে অপহরণ করেনি। আমার পিতা মিথ্যা মামলা দিয়ে আমার স্বামীর পরিবার ও আমাকে হয়রানি করছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রায়পুর থানার এসআই ফোরকান বলেন, লোপা আদালতে হাজির হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার মামলার শুনানী হওয়ার কথা রয়েছে। আদালতের নির্দেশে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।