রায়পুরে ইসলামী ব্যাংক থেকে ৮ লাখ টাকা উধাও, আটক- ১

রায়পুর প্রতিনিধি : রায়পুরে ইসলামী ব্যাংক বিতরে ক্যাশ কাউন্টার থেকে এক অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তাকে ধোকা দিয়ে ৮ লাখ টাকা উধাও হয়ে গেছে। এই ঘটনায় তৎক্ষনিক নজরুল ইসলাম নামে এক ছিনতাইকারীকে গনপিটনী দিয়ে পুলিশের হাতে সোর্পদ্দ করা হয়েছে। সে খুলনায় কুটিয়া ভাটার উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের মৃত মনিরুল ইসলামের ছেলে।

কেরোয়া গ্রামের ব্যবসায়ী আব্দুল মতিনের ছেলে ক্ষতিগ্রস্থ অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জন নূরুজ্জামান জানান, কয়েক মাস আগে তিনি রংপুর সেনা নিবাস থেকে অবসর গ্রহণ করেন। বৃহষ্পতিবার সকাল ১০ টায় রায়পুর সেনালী ব্যাংক থেকে অবসর ভাতার ৮ লাখ টাকা উত্তোলন করে ইসলামী ব্যাংকে জমা দিতে ক্যাশ কাউন্টারে দাড়ান। এসময় তাকে অচেনা নজরুল ইসলাম নামে ছিনতাইকারী কয়েকটি ১০ টাকার নোট নিচে ছিটিয়ে তা উঠানোর জন্য বলেন। পরে ঐ টাকা নেওয়ার জন্য কাউন্টারের নিচে মাথা নিচু করার মূহুর্তেই ৮ লাখ টাকা উধাও হয়ে যায়। পরে ঐ ছিনতাইকারী আটক করে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোর্পদ্দ করলেও অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে আর টাকাগুলো পাওয়া যায় নি।

কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, এ ব্যাংক প্রতিষ্ঠার পর থেকে গ্রাহক হয়রানী ও জ্বাল টাকা উদ্ধার সহ ক্যাশ কাউন্টার থেকে প্রায় ১৫ জন ব্যবসায়ীর টাকা উধাও হয়েছে। ব্যাংকের সি.সি ক্যামেরা না থাকায়, প্রায় প্রতিদিন এসব ঘটনা ঘটলেও কর্তৃপক্ষ নিরব ভূমিকা পালন করছেন।

এ ঘটনায় ব্যাংক ব্যবস্থাপক জসিম উদ্দিন বলেন, তিনি সকাল ১০ টায় ব্যাংকের কাজে চাঁদপুর গিয়েছিলেন। অন্য কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে ঘটনাটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবেন।

রায়পুর থানার ও.সি (তদন্ত) সোলায়মান চৌধুরী বলেন, খবর পাওয়ার সাথে সাথে ব্যাংকে গিয়ে ছিনতাইকারীকে আটক করা হয়েছে। এই ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। তবে টাকার খোজ সহ ব্যপারে খোজ নেওয়া হচ্ছে।