রামগতিতে আ’লীগ কর্মীর মৃত্যু

কমলনগর: রামগতিতে ছাত্রদলের হামলায় আহত আ’লীগ কর্মী নুর ইসলাম মনি (৪৫) মারা গেছেন। শনিবার সকাল সাড়ে ৬টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে শুক্রবার দুপুরে উপজেলার আলেকজান্ডার ইউনিয়নের জনতা বাজার এলাকায় ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের হামলায় তিনি গুরুতর আহত হন। নুর ইসলাম মনি উপজেলার চরআলেকজান্ডার ইউনিয়নের জনতা বাজার এলাকার মজিবল হকের ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়ন আ’ লীগের সক্রিয় কর্মী ছিলেন। চরআলেকজান্ডার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সুমন হাওলাদার জানান, ছাত্রদলের হামলায় গুরুতর আহত নুর ইসলাম মনিকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য শুক্রবার রাতেই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকালে তার মৃত্যু হয়। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোক্তার হোসেন জানান, হামলায় আহত আ‘লীগ কর্মী নুর ইসলাম মনির মৃত্যুর খবরের পর পরিস্থিতি শান্ত রাখতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। মামলা দায়ের হলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন। প্রসঙ্গত, স্থানীয় বালুরচর উচ্চ বিদ্যালয়ে বুধবার সকালে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রদলের সঙ্গে সংঘর্ষে ছাত্রলীগের দুই কর্মী আহত হওয়ার ঘটনায় থানা মামলা দায়েরের জের ধরে শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জনতা বাজার ও বাজার সংলগ্ন এলাকায় ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা আ’লীগ কর্মী নুর ইসলাম মনিকে দেশীয় তৈরি দা ও ছেনি দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের লোকজন ছাত্রদল কর্মীদের বাড়িতে হামলা চালান। এতে নারীসহ উভয়পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হন।