রায়পুরে ধর্ষণ মামলা প্রত্যাহার না করায়, ইন্টারনেটে গোপন দৃশ্য ছেড়ে দেওয়ার হুমকি

রায়পুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারে হুমকি ও চাপ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। কথামতো মামলা প্রত্যাহার না করলে ওই ছাত্রীর গোপন দৃশ্য ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। মামলার বাদী ও ওই স্কুল ছাত্রীর এমন অভিযোগ করেছেন আসামী ফরহাদ হোসেন, শামিম, সবুজ, মনির, জয়নালসহ তাদের পক্ষের লোকজনের বিরুদ্ধে। তবে অভিযোগ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজী হননি অভিযুক্তরা কেউ। তাদের দাবি বিষয়টি আইনীভাবেই মোকাবেলা করা হবে।

মঙ্গলবার (২৬ ডিসেম্বর) দুপুরে রায়পুর পৌর শহরের পূর্বলাছ এলাকায় ভুক্তভোগীর মা জানান, একই এলাকার ফরহাদ হোসেন দীর্ঘদিন থেকে তার জেএসসি পড়ুয়া কন্যাকে বিয়ের জন্য উত্যক্ত করে আসছিল। ৫ নভেম্বর ওই ছাত্রী বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে ফরহাদ (২০), শামীম (২০), সবুজ (২৫), শিউলী বেগম (৩০), মনির হোসেন (৪৫), জয়নাল আবেদীন (৪০) মিলে তাকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে জোরপূর্বক কাবিননামাসহ কয়েকটি কাগজে ছাত্রীর স্বাক্ষর নেওয়া হয়।

এরপর ফরহাদ তাকে একটি কক্ষে আটকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে মোবাইলে গোপন দৃশ্য ধারণ করে রাখে। এরপর তারা ছাত্রীটিকে বাড়ির সম্মুখে এনে ছেড়ে দেয়। পরবর্তীতে ওই দৃশ্য ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে ১০ লক্ষ টাকা দাবি করে ফরহাদ। এ ঘটনায় ছাত্রীর মা বাদি হয়ে লক্ষ্মীপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলা করেন (৫৯৭/১৭)। আদালতের নির্দেশে ইতোমধ্যে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল ওই স্কুল ছাত্রীর মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন করে আদালতে প্রতিবেদন দিয়েছেন। মামলাটি শুনানির অপেক্ষায় রয়েছে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আসামীরা মামলা প্রত্যাহারে হুমকি ও চাপ দিয়ে যাচ্ছে বলে ছাত্রীর মায়ের অভিযোগ। মামলা প্রত্যাহার না করলে ইন্টারনেটে স্কুলছাত্রীর নগ্ন ছবি ছেড়ে দেওয়ারও হুমকি দিচ্ছে তারা। এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে ফরহাদ হোসেন (২০) বলেন, এ নিয়ে আমরা কথা বলতে চাই না। মামলাটি আদালতে আইনীভাবেই মোকাবেলা করা হবে।