লক্ষ্মীপুরে সন্ত্রাসী হামলায় একই পরিবারের ৭ জন আহত

নিজস্ব প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা চররমনী মোহন ইউনিয়নে সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলায় দুই মহিলা-শিশু সহ একই পরিবারের ৭ জন আহত হয়েছে। এ সময় দা-চেনি ও চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে এবং লাঠি-সোটা দিয়ে পিটিয়ে মারত্বকভাবে জখম করে দেয় সন্ত্রাসীরা। আহতদের উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা স্থানীয়রা। ঘটনাটি ঘটে সদর উপজেলা উত্তর চররমনী মোহনের করাতির হাট মোল্লা বাড়ীতে। আহতরাহলেন, সাহাব উদ্দিন, খোদেজা বেগম, কামাল হোসেন, নাজমুল, আমজাদ, হালিমা বেগম ৪ মাসের শিশু তারেক।
নিজ বাসত ভিটা থেকে উচ্ছেদ করতে হামলা চালায় বলে অভিযোগ ভুক্তভোগী পরিবারের। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ ঘটনার সাথে ওই ্ইউনিয়নের  চেয়ারম্যান আবু ইউছুফ ছৈয়ালের ইন্ধনে এমন ঘটনা ঘটেছে বলে জানান তারা।
ঘটনাস সূত্রে জান যায়, দ্বীর্ঘদিন থেকে স্থানীয় সাহাব উদ্দিন মোল্লার সাথে তার ভাতিজাদের সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছে। এ নিয়ে একাধিক বার সালিশী বৈঠক হয়।
শনিবার দুপুরে কিছু না বুঝে উঠতেই চেয়ারম্যানের ভাতিজা নাছির, আলাউদ্দিন ও আমজাদ ছৈয়ালের নেতৃত্বে ১০/১২ জনের একটি সন্ত্রাসী দল দা-চেনি, কুড়াল দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও লাঠি-সোটা দিয়ে পিটিয়ে মারত্বকভাবে জখম করে দেয়। এতে মাথায় হাতে ও বুকে মারত্বক জখম হয় সবার।

এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে ভুক্তভোগী পরিবার। এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যানকে একাধিকবার মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে কিছু না বলেই মোবাইল ফোন কেটে দেয় তিনি।