অসামাজিক কাজের অভিযোগে লক্ষ্মীপুরে শিশু শ্রমিককে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরে গরুর সাথে অসামাজিক কাজের অভিযোগ এনে সোহেল (৯) নামের এক শিশু শ্রমিককে গাছের সঙ্গে বেঁধে অমানবিক নির্যাতনের অভিযোগ ওঠেছে। সদর উপজেলা মান্দারী গ্রামের আমির পাটোয়ারী বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার সকাল ১১ টা থেকে বিকাল ৪ পর্যন্ত টানা ৬ ঘন্টা এ অমানসিক নির্যাতন চালায় ওই বাড়ির কালূ পাটোয়ারীসহ অন্যান্যরা। খবর পেয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান মিজানুর রহিম গ্রাম পুলিশ  পাঠিয়ে বিকালে ওই শিশুটিকে উদ্ধার করে এবং স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়।

নির্যাতিত শিশু সোহেল একই উপজেলা শান্তিরহাট কুশাখালি গ্রামের শহিদুল হোসেনের ছেলে ও মান্দারী কমার্শিয়াল মার্কেটের বাবুল ভ্যারাইটিজ ষ্টোরের দোকান কর্মচারী। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে দোকানের মালিক বাবুল বাদী হয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করে।

দোকান মালিক বাবুল জানান, প্রায় ৫ মাস আগে সোহেল তার দোকানে কাজ নেয়। সকাল ১০ টার দিকে তার খাবার আনার জন্য শিশু সোহেলকে পশ্চিম মান্দারী গ্রামের আমির পাটোয়ারী বাড়ীতে পাঠায়।

বেলা ১১ টার দিকে দোকানের উদ্দ্যেশে যাওয়ার পথিমধ্যে কালু পাটোয়ারীর গরুর সঙ্গে অসামাজিক কাজের অভিযোগ তুলে শিশুটিকে বেধম মারধর করা হয়। বাড়ীতে ধরে নিয়ে গাছে সঙ্গে বেঁধে সে নিজে, তার ভাই ও তার মেয়ে কিল-ঘুষি, লাথি এবং ঝাড়ু দিয়ে আবারো মারধর করে। শিশুটির শোর-চিৎকারে পাশ্ববর্তী লোকজন তার মা-বাবাকে জানায় এবং তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করে। এ সময় কালু পাটোয়ারী তাকে ছেড়ে না দিয়ে উল্টো ৬০ হাজার টাকা দাবী করে। দাবীকৃ টাকা না দেয়ায় টানা ৬ ঘন্টা গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করতে থাকে।

পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান মিজানুর রহিম খবর পেয়ে পরিষদের মেম্বার ইসমাইল, গ্রাম পুলিশ বেলাল সহ কয়েকজনের পাঠিয়ে বিকালে শিশুটিকে উদ্ধার করে।

স্থানীয় মান্দারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিজানুর রহিম জানান, নির্যাতনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে একজন মেম্বার সহ গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। বর্তমানে সে চিৎিসাধীন রয়েছে। অভিযুক্তদের ঢেকে পরিষদে নির্যাতনের বিষয় জানতে চাইলে তারা কোন উত্তর দিতে না পারায় ভুক্তভোগী পরিবারকে আইনের সহায়তা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছি।

চন্দ্রগঞ্জ থানা অফিচসার ইনচার্জ মোক্তার হোসেন জানান, শিশু নির্যাতনের ঘটনায় থানা অভিযোগ দেয়া হয়েছে। আভিযোগে আলোকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।